Be a Blogger! Write your articles.

Search In blog

ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন করে আয় করবেন কিভাবে?

ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন করে আয় করবেন কিভাবে?

আসসালামু-আলাইকুম, যখন আমরা সবাই ফেসবুকে কোন ভিডিও দেখি তখন নিশ্চয়ই খেয়াল করেছি যে ভিডিও এর মাঝে বিজ্ঞাপন দেখায় যা সাধারণত বিজ্ঞাপনদাতারা দিয়ে থাকেন। এই ভিডিওগুলির মাঝে বিজ্ঞাপনদাতারা বা ব্যবসায়ীরা বিজ্ঞাপন দিতে পারে ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন এর মাধ্যমে । এই সব কিছুই সম্ভব হয় ফেসবুকের দর্শকদের নেটওয়ার্কের মাধ্যমে।


ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন (Facebook Page Monetization) করে ইউটিউবের চেয়ে বেশি অর্থোপার্জন করা যায়। ইউটিউব ক্রিয়েটরদের যত শতাংশ পেমেন্ট করেন তার চেয়ে বেশি ফেসবুকে পেমেন্ট করে থাকেন। আমি নিজেও ইউটিউব চ্যানেল নিয়ে অনেকদিন ধরে কাজ করে যাচ্ছি। বলা যায় ইউটিউবের চেয়ে ফেসবুকের শর্ত অনেক সহজ। অপর দিকে ফেসবুকের ভিডিও মার্কেটিংয়ের একাধিক উপায় থাকায় সহজে ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন পাওয়া যায়।

সহজ বলতে বিষয়টা এমন না যে, আপনি একটা পেইজ তৈরি করলেন আর ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন (Facebook Page Monetization) দিয়ে দিল৷ আসলে পৃথিবীতে অথোপার্জনের কোনো উপায় সহজ নয়। তবে যারা চেষ্টা করে তারা যা ইচ্ছে তা করে উপার্জন করতে পারেন। সুতরাং আপনিও যদি ফেসবুক পেইজ মনিটাইজ করে উপার্জন করতে চান, তাহলে আজকের লেখাটি আপনার জন্য।

ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন কি ?

এখন, আপনি ভিডিও কন্টেন্টের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য ফেসবুককে একটি সমান দক্ষ পার্টনার হিসাবে গণনা করতে পারেন । ইউটিউবের সেই একক বা মনোপলি ব্যবসা এখন আর নেই। সেই জায়গাটা এখন দখল করে নিয়েছে ফেসবুক। এখন ফেসবুক মনিটাইজেশনও ইউটিউবের সাথে সমান ভাবে ভিডিও কনটেন্ট এর মধ্যে বিজ্ঞাপন দেখাতে সক্ষম।

ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করতে চাইলে ফেসবুকের ভিডিও মনিটাইজেশন নিয়ে কাজ করতে গেলে একটি পরিকল্পনা নিয়ে আগাতে হবে । এই বিষয়ে আপনাকে সাহায্য করতেই এইখানে কিছু অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আলোচনা করা হল। 

ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন এর জন্য যেকোনো ধরনের কৌশলগত বিষয়ে চিন্তা করার আগেই, আপনাকে ফেসবুক অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক সম্পর্কে নতুন নতুন বিষয় বা আপডেট গুলো জেনে নিতে হবে।

ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে আয় বা এই ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন এর পরিকল্পনা ফেসবুক কয়েক-মাস আগে উদ্ভাবন করেছে। দুটি বিজ্ঞাপন ফরমেট পরীক্ষামূলকভাবে প্রচারিত করা হয়েছিল, ইন-স্ট্রিম বা ভিডিও এর মধ্যে পাঁচ থেকে পনেরো সেকেন্ডের একটি বিজ্ঞাপন দেখানো ছিল একটি ফরমেট আরেকটি ছিল ইন-আর্টিকেল বা আর্টিকেলের মধ্যে দেখানো বিজ্ঞাপন ফরমেট। তবে ইন-আর্টিকেল ফরমেট টা ছিল হাতে গোনা কিছু প্রকাশনার জন্য যেমন USA Today Sports Media group এবং Daily mail (মোবাইল ফরমেট এরজন্য ছিল)।

ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন (Facebook Page Monetization) করার পদ্ধতিঃ

আপনি যখন শর্ত নিয়ে চিন্তা করবেন, তখন হাজার হাজার শর্ত খোঁজে পাবেন। শর্ত তারাই খোঁজেন যারা কাজের জন্য অযোগ্য। সুতরাং আপনি যদি ক্রিয়েটিভ এবং পরিশ্রমী হয়ে থাকেন, তাহলে সাধারণ কয়েকটি শর্ত পূরণ করে আপনি ফেসবুক থেকে আয় করতে পারেন। চলুন আলোচনা করা যাক, ফেসবুক পেইজ মরিটাইজেশন করার জন্য আপনাকে কাজ করতে হবে তা নিয়ে।

১. দশ হাজার ফলোয়ার সংগ্রহ করা:

ফেসবুকের দেওয়া শর্তানুযায়ী আপনাকে প্রথমে দশ হাজার ফলোয়ার সংগ্রহ করতে হবে। আপনার পেইজে যদি দশ হাজার ফলোয়ার হয়ে যায় তাহলে আপনি ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন (Facebook Page Monetization) পাবেন। তবে দশ হাজার ফলোয়ার ছাড়াও আপনাকে আরও কিছু শর্ত পূরণ করতে হবে। সবার জন্য প্রথম দশ হাজার ফলোয়ার সংগ্রহ করার কাজটা খুবই কঠিন হয়ে থাকে। এজন্যই অনেকেই এই কাজে ব্যর্থ হয়ে থাকে। প্রকৃতপক্ষে আপনি যদি একটু কৌশল অনুসরণ করতে পারেন, তাহলে এটা একদম কঠিন কাজ নয়।

ফলোয়ার পাওয়ার জন্য আপনাকে ফেসবুক মার্কেটিংয়ের বেসিক শিখতে হবে। আপনি যদি বেসিক মার্কেটিং শিখে যান, তাহলে সহজে দশ হাজার ফলোয়ার সংগ্রহ করতে পারবেন। কোয়ালিটি কন্টেন্ট হচ্ছে ফেসবুক মার্কেটিংয়ের পাওয়ার। ফেসবুকে আপনি প্রতিদিন ছোট ছোট কিছু কন্টেন্ট বিভিন্ন গ্রুপের মধ্যে শেয়ার করতে পারেন। গ্রুপ হয়ে দশ হাজার ফলোয়ার সংগ্রহ করার উপযুক্ত প্লাটফর্ম।

২. নিয়মিত ভিডিও কন্টেন্ট আপলোড করাঃ

একটু আগেই বলেছিলাম। কন্টেন্ট হচ্ছে অনলাইন জগতে রাজত্ব করার মূল শক্তি। আপনি যত ভালো কন্টেন্ট তৈরি করতে পারবেন ততই দ্রুত আপনি সফলতা পাবেন। ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন (Facebook Page Monetization) করতে চাইলে আপনাকে তিন মিনিট বা তিন মিনিটের থেকে বড় ভিডিও আপলোড করতে হবে। তিন মিনিটের চেয়ে ছোট ভিডিওগুলোর ভিউ গণনা করা হবে না। সুতরাং ভিডিও ভিউ বৃদ্ধি করতে ও বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য উপযুক্ত করতে প্রতিটি ভিডিও তিন মিনিটের চেয়ে বড় হতে হবে।

৩. ৩ মাসের মধ্যে ৩০ হাজার মিনিট ভিডিও দেখতে হবেঃ

আপনি যে ভিডিও কন্টেন্ট আপলোড করবেন সেগুলো যখন ভিউয়াররা দেখবে, তখন ভিডিও ওয়াচ টাইম গণনা করা হবে। এক মিনিটের কম সময় দেখা ভিডিওর ওয়াচ টাইম গণনা করা হবে না। যে ভিউয়ার কোনো ভিডিও এক মিনিটের বেশি সময় ধরে দেখবে শুধুমাত্র তার ওয়াচ টাইম গণনা করা হবে। এভাবে আপনাকে ৩ মাসের মধ্যে ৩০ হাজার মিনিট ওয়াচ টাইম সংগ্রহ করতে হবে। এভাবেই আপনাকে ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন করতে চাইলে শর্ত সমূহ পূরণ করতে হবে।

কিভাবে বুঝবেন Facebook Page Monetization এর সকল শর্ত পূরণ করেছেন কি-না?

এটা একদম সহজ। আপনি যখন ফেসবুক ক্রিয়েটর পেইজে যাবেন, তখন সবকিছুর এনালাইটিকস দেখতে পাবেন। আপনার সকল বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন হলে অটোমেটিক ফেসবুক আপনাকে মনিটাইজেশন সেট-আপ করার মেসেজ দিবে। ফেসবুকের কাছ থেকে জানানো হলেই আপনি ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন করে অর্থোপার্জন করতে পারবেন।

ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন এলিজিবিলিটি স্টান্ডার্ড ২০২০

আপনার কনটেন্ট এর মধ্যে ‘বিজ্ঞাপন বিরতি’ দিয়ে প্রকাশক দের অর্থ উপার্জনের একটি পথ খুলে দিয়েছে ফেসবুক। কমিউনিটি স্টান্ডার্ড আর ফেসবুক মনিটাইজেশন এলিজিবিলিটি স্টান্ডার্ড সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারনা থাকলে যে কেউ ভিডিওয়ের মধ্যে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে ফেসবুক থেকে ইনকাম করতে পারবে। অর্থাৎ দুই পক্ষই যে বিজ্ঞাপন তৈরি করছে সেও এবং যে বিজ্ঞাপন দিচ্ছে সেও একই সাথে বন্ধু ভাবাপন্ন পরিবেশে। ফেসবুকের স্টান্ডার্ড অনুযায়ী প্লাটফর্মটির নেটওয়ার্কের যোগাযোগ ব্যবহারকারীদের জন্য উপযোগী আর স্থায়ী হতে হবে।

নিচে কিছু তালিকা দেওয়া হল যেমনঃ

কমুউনিটি স্টান্ডার্ড, কপিরাইট, ইনটেলেকচুয়াল প্রোপার্টি ক্লেইম এবং ইন্সটান্ট আর্টিকেল ডোমেইন রিভিউ। 

‘বিজ্ঞাপন বিরতি’ কি ?

বিজ্ঞাপন বিরতি হল ছোট্ট বিরতি যা আপনি অর্থ উপার্জনের জন্য আপনার ভিডিও তে দেখাতে অনুমতি দেন। বিজ্ঞাপন আপনার কনটেন্ট এর যেকোনো সময়ই দেখাতে পারে অথবা আপনি সেই সময় টি নির্বাচন করে দিতে পারবেন।

ফেসবুক এড ব্রেক এলিজিবিলিটি পরীক্ষা করাঃ

ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন করে ইনকাম করুন

উপরে দেওয়া ছবি থেকে আপনি নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন ফেসবুকের কি কি নিয়ম মেনে চললে এলিজিবিলিটি পরীক্ষা দেওয়া যাবে ফেসবুক বিজ্ঞাপন বিরতির জন্য ।

  •  আপনার ফেসবুক পেজ মনিটাইজ করতে কমপক্ষে ১০,০০০ লাইক/ফলোয়ার থাকতে হবে। আপনার আর কিছু থাকলেও এই সীমা আপনাকে রক্ষা করতেই হবে।
  •  দ্বিতীয় যে বিষয় মানতে হবে তাহল আপনাকে অবশ্যই চেষ্টা করতে হবে যেন সকলে আপনার ভিডিও অন্তত একমিনিট দেখে যদি তা তিন মিনিটেরও হয়।এই অনুপাত ফেসবুক নির্ধারণ করে দিয়েছে।
  •  আপনার কনটেন্ট অবশ্যই ফেসবুকের এলিজিবিলিটি মানদণ্ড বা স্টান্ডার্ড অনুযায়ী হতে হবে।
  •  শেষ এলিজিবিলিটি চেক হল আপনার পেজ অবশ্যই সেইসব দেশের তালিকায় থাকতে হবে যেসব দেশের ফেসবুকে বিজ্ঞাপন বিরতি দেখানো যাবে।

এই চারটি এলিজিবিলিটি পরীক্ষা যদি আপনি পাশ করতে পারেন তাহলে অবশ্যই আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন ফেসবুক ভিডিও তে বিজ্ঞাপন দিয়ে । 

ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন এই বছর কিছু নতুন আপডেট দিয়েছেঃ

  • ফেসবুক অডিয়েন্স নেটওয়ার্কে রেজিস্ট্রেশন করে আপনিও ফেসবুকের অংশীদার হিসেবে প্রিমিয়াম ভিডিও কনটেন্ট এর মনিটাইজেশন শুরু করতে পারবেন ।
  • প্রোমোশোনাল টুলসের সাহায্যে নিজের ওয়েব সাইটে অথবা অ্যাপসের সাহায্যে অডিয়েন্স নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ফেসবুকের ভিডিও কনটেন্টে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে অর্থ উপার্জন করতে পারবে এই সকল অংশীদার এবং যোগ্য প্রকাশক।
  • কিছুদিন আগেই ফেসবুক কিছু বিষয় পরীক্ষামুলক প্রচার করেছিল আর তা হল ইউ এস এর ফেসবুক প্রোফাইল বা পেইজের লাইভে বেটা টেস্ট বিজ্ঞাপন প্রচার করে।
  • চাহিদা অনুযায়ী কয়েকজন পার্টনার মিলে যে ভিডিও তৈরি করা হয় তার মাঝেও ফেসবুক বিজ্ঞাপন সম্প্রচার করেছিল পরীক্ষামূলক ভাবে।
  • ফেসবুক অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক এবং এর সাথে সম্পর্কিত কিছু তথ্য 

বিজ্ঞাপন দাতাদের বিজ্ঞাপনের মান এবং ক্রেতাদের অভিজ্ঞতার আলোকে প্রকাশকরা তাদের ব্যবসাকে আরো একধাপ এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবে যদি ফেসবুক অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক এর সাহায্য নেওয়া যায় । এইটা এমন একটি নেটওয়ার্ক যা প্রকাশক দের ব্যবসা এক ধাপ সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে কারন এই নেটওয়ার্কের আছে ১.৮ মিলিয়ন ব্যবহারকারি। ইন-স্টিম এর নীতিমালা খুবই উপকারী সমস্ত পৃথিবীর সব প্রচলিত বিজ্ঞাপন ভিডিও এর মধ্যে দেখানো হলে তা ডেক্সটপ ব্যবহার কারীদের কাছেও গ্রহনযোগ্য এবং মোবাইল ফোন ব্যবহার কারীদের কাছেও গ্রহনযোগ্য হতে হবে।

ফেসবুকের প্রায় ৪ মিলিয়ন বিজ্ঞাপন দাতা এবং ছোট ব্যবসায়ীদের বেড়ে যাওয়ার কারনে ফেসবুক অডিয়েন্স নেটওয়ার্কের চাহিদা উত্তরোত্তর বেড়ে চলেছে। তারা CPM এর সবচেয়ে বেশি সরবরাহের হার এবং সব জায়গা থেকে কনস্ট্যান্ট বা স্থায়ী ব্যবস্থা আশা করে।

FAN(Facebook Audience  network) এর সাহায্য নিয়ে ব্রান্ডগুলো তাদের বিজ্ঞাপন প্রচারনার কাজ বিভিন্ন এপস এবং ওয়েবসাইটের জন্য করতে পারে। টার্গেটিং ডাটা ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন দাতারা তাদের রিচের জন্য প্রচারনার কাজ বাড়াতে পারে।

ফেসবুক অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক  (FAN ) এর জন্য আবেদন করতে যে তালিকা গুলি প্রকাশকদদের থাকা প্রয়োজন ঃ

যে গুনগতমান ও শর্ত বজায় রাখতে হবে প্রকাশকদের ফেসবুক অডিয়েন্স নেটওয়ার্কের জন্য:

  • ভিডিও তে বিজ্ঞাপন আগে মানে প্রি রোল দেখানো যাবে আবার মিড রোল মানে মাঝেও দেখানো যাবে।
  • তবে এটা অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে পরে কোন বিজ্ঞাপন মানে পোস্ট রোল দেখানো যাবেনা সেই সাথে গেইম এর বিজ্ঞাপন আগে বা মাঝে দেখানো যাবেনা ।
  • ভিডিও যেগুলো যোগ করা হবে কোন আর্টিকেল এর মধ্যে সেইগুলো অবশ্যই ক্লিক করতে হবে এবং অটো প্লে ভিডিও দেখানো যাবে যদি তা কনটেন্ট এর প্রথম পেইজে ভিডিও হিসেবে দেখানো হয়।
  • সেই সাথে ক্লিক এর সাথে সাথে প্লে হওয়া ভিডিও চলবে।
  • শব্দ বা সাউন্ড অবশ্যই অন হতে হবে সবসময় গতানুগতিক ধারাই।
  • ভিডিও প্লেয়ার এর সাইজ অবশ্যই ৫০০ পিক্সেল বা ৩০০ পিক্সেল প্রশ্বস্থ্য হতে হবে মোবাইল এবং ডেক্সটপ দুই জায়গাতেই।
  • অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক বিজ্ঞাপন সরিয়ে দেওয়া যাবে বা স্কিপ করা যাবে ১০সেকেন্ড পর যদি সেই ভিডিও টি ৩০সেকেন্ড এর হয়।যদি ৩০সেকেন্ডর কম হয় তাহলে স্কিপ করা যাবেনা।
  • ওয়েব প্লেয়ারকে অবশ্যই ভিপেইড এর সাথে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। এবং ইউআরএলও অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক ভিপেইডের সাথে কাজ করবে এবং একি পেইজ ইউআরএল থেকে কাজ করবে।
  • অবশ্যই এইটা আগে দেখে নিতে হবে যেন অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট কিট(SDK)  মোবাইল এপস এর জন্য ও কাজ করবে ভিডিও এর ভিতরে দেওয়া বিজ্ঞাপন গুলিতে।

ভিপেইড  মানে ভিডিও প্লেয়ার এড সার্ভিং ইন্টারফেইসের নমুনা বা টেমপ্লেট বিজ্ঞাপন ভিডিও গুলির জন্য তৈরি। অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক এসডিকে (SDK) হল iOS এবং  Android এ ফেসবুক অ্যাপস ব্যবহার করলে যেন বিজ্ঞাপন গুলি দেখানো যায় ।

ফেসবুক অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক আবেদনের কিছু ধাপ বা স্টেপঃ

প্রকাশকদের কাজের বৈশিষ্ট্য তৈরি করতে কিছু তালিকা অনুমোদনের প্রয়োজন অডিয়েন্স নেটওয়ার্কের মাধ্যমে দেখানো ইন-স্ট্রিম বিজ্ঞাপন গুলির।

সেই নিয়ম গুলি হলঃ
  • প্রথমে আপনাকে DEVELOPER.FACEBOOK .COM একাউন্টে সাইন ইন বা প্রবেশ করতে হবে এবং অডিয়েন্স নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন অ্যাপস এবং ওয়েবসাইট এ দেখানোর জন্য ক্লিক করতে হবে।
  • অবশ্যই আগে দেখে নিতে হবে যেন ডোমেইন, এপ এবং পেমেন্ট এর পরিচিতি বর্ননা আগে থেকেই দেওয়া।
  • সবকিছু পুরন করে জমা দেওয়ার পর ফেসবুক অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক দল তা পর্যালোচনা করে এবং খুব শিঘ্রই আপনাকে জানিয়ে দিবে।
  • যখন এইটা অনুমোদন হয়ে যায় তখন ইন-স্ট্রিম ভিডিও বিজ্ঞাপন অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক বিভাগে দেখানো শুরু হয়।
কমিউনিটি স্টান্ডার্ড ঃ

নিরাপত্তা বা সেফটি: কনটেন্ট অবশ্যই সুস্থ বা স্বাবাবিক বিষয় এর উপর হতে হবে যাতে করে ব্যবহারকারিরা অন্যদের সাথে যুক্ত হতে এবং কমিনিটি বা সামাজিক বন্ধন তৈরি করতে পারে নির্ভয়ে।

আওয়াজ বা ভয়েস: ভিন্ন ভিন্ন মতামত অবশ্যই প্রকাশ করার অনুমোদন আছে কিন্তু এই ধরনের অনুভূতি, পোস্ট অথবা কমেন্ট প্রয়োজনীয় সময় প্রকাশ করাই বেশি ফলপ্রসূ হয়ে থাকে।

ন্যায়নীতি বা ইকুইটি: সবচেয়ে প্রাধান্য দেওয়া হয় বিভিন্ন ধরনের সামাজিক যোগাযোগ ও সমতা বজায় রাখার বিষয়ে । 

উপরে বলা যেকোনো একটি নিয়ম ভঙ্গ করলে ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন এর বৈশিষ্ট্য থেকে বাদ পড়ার সুযোগ হয়ে যাবে। সেক্ষেত্রে এই গাইড লাইন অবশ্যই নির্মাতা এবং বিজ্ঞাপন দাতাদের মেনে চলতে হবে ফেসবুক মনিটাজেশন নিয়ে কাজ করতে হলে।

কপিরাইট এবং ব্যক্তিগত মালিকানা দাবিঃ

ব্যক্তিগত মালিকানা দাবি লংঘন: অবশ্যই এমন কনটেন্ট ব্যবহার করা যাবে না যার প্রকৃত নির্মাতার কোন অনুমোদন থাকবে না। এই ধরনের কোন সীমা লংঘন করলে ফেসবুক আপনার কনটেন্ট অপসারণ বা রিমুভ করবে।

বার বার অন্য কারো ব্যক্তিগত মালিকানা দাবি রক্ষার অধিকার :

যখন বার বার আপনি কারো ব্যক্তিগত মালিকানা থাকা কোনও বিষয় কনটেন্ট এ পোস্ট করে সীমা লংঘন করবেন ।

ইন্সট্যান্ট আর্টিকেল ডোমেইন রিভিউ ঃ

এই নিয়মে পরে হল প্রকাশক যখন তার পেইজে কনটেন্ট প্রকাশ করবে তখন ফেসবুক তা পরীক্ষা করে নিতে পারবে। এই পরীক্ষা সাধারণত স্বয়ংক্রিয় ভাবে মেশিনে এবং নিজেরা যাচাই করে করা হয় ওয়েব সাইটের কনটেন্ট এর মান অনুযায়ী ।


নিম্ন মানের কনটেন্ট সামাজিক অসুন্তুষ্টি তৈরি করতে পারে ব্যবহার কারিদের মাঝে যার কারনে ফেসবুক তা আগে থেকেই নেটওয়ার্ক রক্ষার জন্য সরিয়ে দেয়।

ট্রাফিকের মতামত অনুযায়ী না হলে বা কনটেন্ট প্রকাশের ধারা যদি ধারাবাহিকতা রক্ষা না করে তাহলে তাৎক্ষনিক নিবন্ধের এক্সেস হারাতে পারে যে কেউ। আর ফেসবুক ভিডিও মানিটাইজেশনের জন্য বিভিন্ন আপ-টু-ডেট নিয়ম ব্যপারে সচেতন থাকতে হবে এবং প্রয়োগ করতে হবে ফেসবুক ভিডিও পোস্টে নতুন নতুন কৌশল ।

উপকারী কিছু পরামর্শঃ ফেসবুক ভিডিও মনিটাজেশন ২০২০

  • ফেসবুকের কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ড বর্ননা অনুযায়ী বার বার দেখাতে গেলে কনটেন্টে অবশ্যই প্রকাশিত পোস্টটিকে এই নীতিমালা অনুসরণ করতে হবে।
  • অবশ্যই এইটা দেখে নিতে হবে যেন কনটেন্ট এর বিষয়বস্তু অন্য কারো ব্যক্তিগত মালিকানার দাবিদার না হয়।
  • কখনও আপনার ওয়েবসাইট বা ফেসবুক একাউন্ট এ নিম্ন মানের কনটেন্ট গ্রহন করবেন না যেখানে নিয়ম অনুসারে ফলোওয়ারদের জন্য একটি সুন্দর ও গুনগত মান সম্পন্ন কনটেন্ট দেখাতে বলা হয়েছে।
  • অবশ্যই ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন এর সকল নিয়মনীতি আপনার কনটেন্ট এ আপনি মেনে চলেবেন যাতে করে বিজ্ঞাপন বিরতির জন্য আপনার কনটেন্ট উপযুক্ত হবে ।

কিভাবে উপার্জিত টাকা হাতে পাবেন?

বর্তমানে একাধিক উপায়ে ফেসবুক ক্রিয়েটরদের টাকা প্রদান করে যাচ্ছে। আপনি নিজের দেশের যেকোনো লোকাল বা জাতীয় ব্যাংকের মাধ্যমে উপার্জিত টাকা উঠাতে পারবেন। এবিষয়ে আরো জানার থাকলে কমেন্ট প্রশ্ন করতে থাকুন, আপনার সকল প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হবে।



Report Print
Share Via:

About Author


0 Response to "ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন করে আয় করবেন কিভাবে?"

Post a comment

Total Pageviews