Facebook SDK

SEO ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল কিভাবে লিখবেন?
SEO ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল কিভাবে লিখবেন?


আসসালামু-অলাইকুম, আজকের টপিক হচ্ছে SEO Friendly আর্টিকেল কি ? SEO Friendly আর্টিকেল কিভাবে লিখবেন ? আপনি যদি ওয়েবসাইট থেকে income করতে চান ।তাহলে আজকের টপিক আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ।

SEO ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল কিভাবে লিখবেন?[TOP-10 TIPS]


ফ্রেন্ডস আপনি ভালো আর্টিকেল লেখেন এর মানে এই নয় যে আপনার ব্লগে ভালো ট্রাফিক আসবে । ব্লগে যে আর্টিকেল লিখেছেন ওতে ট্রাফিক আসার জন্য আপনার পোস্টটি Google এ Rank হওয়া খুবই জরুরি ।এর জন্য আপনার পোস্টের আর্টিকেল টি SEO Friendly হওয়া খুবই জরুরি। যাতে Google বুঝতে পারে আপনি যে আর্টিকেল লিখছেন ওটা কোন টপিক এর উপর base করে ।


যখন আপনি কোন পোস্ট লিখেন তখন সেটির SEO করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ এরপরে আপনার পোস্ট গুগল সার্চ রেজাল্টে  টপ রেঙ্ক করতে পারবে এর ফলে আপনি বেশি ভিজিটর পাবেন আর আপনার সাইটের ইনকামও বৃদ্ধি পাবে যদি আপনি আপনার ব্লগের নতুন এবং পুরানো পোস্ট এর SEO করতে চান তা হলেও আমাদের এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য খুবই সাহায্য করবে

যদি আপনি আপনার সাইটকে গুগলের টপ পজিশনে দেখতে চান তাহলে আমাদের এই পোস্টটি অবশ্যই মনোযোগ সহকারে পড়ুন তাহলে চলুন জেনে নেই আপনি আপনার ব্লগে SEO ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল কিভাবে লিখবেন।

SEO Friendly আর্টিকেল কি ? 

ফ্রেন্ডস SEO Friendly আর্টিকেল হচ্ছে আপনার ব্লগের আর্টিকেল টিকে Google এ Rank করা ।অর্থ্যাৎ Google যেন বুঝতে পারে আপনি কোন টপিক এর উপর আর্টিকেল লিখছেন সেই অনুযায়ী আপনার আর্টিকেল টির র্যাংক Decide করা ।




ফ্রেন্ডস ওয়ার্ডপ্রেস এ আর্টিকেল SEO Friendly লেখার জন্য বিভিন্ন ধরনের Plugin আছে ।যেগুলো সাহায্যে আপনি সহজে আপনার আর্টিকেল টিকে SEO Friendly বানাতে পারবেন ।
Plugins এর মধ্যে কিছু Pre-define code থাকে যেগুলো বলে দিবে SEO Friendly আর্টিকেল বানানোর জন্য কোন ওয়ার্ড টা কোথায় Put করতে হবে ।



কিন্তু Blogger এর মধ্যে কোনো Plugins থাকে না তাই SEO Friendly আর্টিকেল বানাতে একটু অসুবিধা হয় । but আমি নিচে ব্লগার এর জন্য কিছু রুলস বলছি যেগুলো Follow করতে আপনি অবশ্যই SEO ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল বানাতে পারবেন ।



একটা কথা মনে রাখবেন Plugins কোনো God-Father নয় । আপনি ভালো ভাবে আর্টিকেল লিখলে আপনার পোস্ট অবশ্যই Search engine এ Rank করবে ।

 SEO Friendly আর্টিকেল কিভাবে লিখবেন ?

আমি এমন ভাবে বলবো আপনি WordPress কিংবা Blogger এ বিনা Plugins ব্যাবহার করে SEO Friendly আর্টিকেল লিখতে পারবেন । তার জন্য কিছু রুলস ফলো করতে হবে ,সেগুলো হচ্ছে:-

1. Keyword Research :

Friends আর্টিকেল লেখার জন্য আপনাকে সর্ব প্রথমে যেটা করতে হবে সেটা হচ্ছে Keyword Research । আপনি যে বিষয়(Niche ) এর উপর আর্টিকেল লিখতে চান সেটাকে Research করে নিতে হবে ।


কীওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য বিভিন্ন tools যেমন semrush কিংবা Ahrefs ব্যাবহার করতে পারেন ।


সাধারণত আপনি এটা দেখবেন :

  • কীওয়ার্ড Volume  
  • SEO Difficulty 
  • CPC
  • Long tail কীওয়ার্ড 


কীওয়ার্ড Volume : সাধারণত কীওয়ার্ড Volume হচ্ছে আপনি যে বিষয়ে আর্টিকেল লিখছেন ওটার Country Rank কিংবা Global Rank কত ।আপনি যদি Freshers হন তাহলে ওই বিষয়ে আর্টিকেল লিখবেন যার Search Volume কম ।



SEO Difficulty :  সাধারণত SEO Difficulty হচ্ছে আপনার কীওয়ার্ড টির উপর র্যাংক করার জন্য কতটা SEO করতে হবে। SEO Difficulty মানে আপনাকে On Page SEO এবং Off Page SEO এর উপর কাজ করতে হবে ।আপনি যদি          Freshers হন তাহলে 40% এর উপর SEO Difficulty হলে ওই কীওয়ার্ড এর উপর কাজ না করা ভালো ।

CPC :   CPC হচ্ছে (Cost Per Click) ।অর্থ্যাৎ আপনি যে কীওয়ার্ড এর উপর আর্টিকেল লিখছেন ওই কীওয়ার্ড এর CPC কত । Freshers হলে আমি recommend করবো আপনি কম CPC কীওয়ার্ড এর উপর আর্টিকেল লিখুন এবং যখনি দেখবেন আপনার ওয়েবসাইটে অর্গানিক ট্রাফিক আসছে তখনি আপনি high cpc কীওয়ার্ড এর উপর কাজ করতে পারেন ।

Long Tail কীওয়ার্ড : আপনার কীওয়ার্ড টিকে সবসময় Long Tail কীওয়ার্ড এ কনভার্ট করার চেষ্টা করবেন । যাতে আপনার বিষয় unique হয়,যতটা ইউনিক হবে তত আপনার চান্স থাকবে র্যাংক করার ।
                               
        
  এছাড়া Google এ কোনো কিছু সার্চ করার সময় দেখবেন Last এ People also search বলে একটা অপসন থাকে যেখানে main কীওয়ার্ড এ sufficiant কীওয়ার্ড থাকে সেগুলো কে ও কভার চেষ্টা করবেন ।ফলে আপনার ব্লগ পোস্ট টি SEO Friendly complete বলে গণ্য হবে।

2.Post Title, Meta Title : 


আপনার পোষ্টের SEO করার জন্য আপনার পোস্টের টাইটেল খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নির্বাহ করে যদি আপনি আপনার ব্লগের টাইটেলের SEO করা শিখে যান তাহলে আপনি আপনার পোষ্টের 40% SEO সম্পূর্ণ করে নেন পোস্টের টাইটেল কম করে হলেও 1-2 কিওয়ার্ড এর ব্যবহার করা উচিত আর টাইটেল এ কিছু স্পেশাল ওয়ার্ড অ্যাড করুন যেমন most, popular, top 10, latest ইত্যাদি

ব্যবহার করার ফলে যে কোন পোস্টে 20% এর বেশি ক্লিক পাওয়া যায় আপনার পোস্টের টাইটেল যত ভালো হবে আপনার পোষ্টের SEO ততবেশি ভালো হয়ে যাবে সুতরাং সর্বপ্রথম আপনার পোস্ট টাইটেল এর উপর focus করতে হবে আর আকর্ষণীয় টাইটেল চুজ করতে হবে।

3.Post Description

যখন আপনি সার্চ ইঞ্জিনে পোস্ট সার্চ করেন তখন ওখানে টাইটেলের নিচে পোস্ট লিংক আর কিছু লাইনে ওয়ার্ড দেখা যায় সেটি পোষ্টের description যেটি SEO এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ

আপনি আপনার পোস্টটির আরো ভালো SEO করতে চাইলে আপনাকে description টিকে খুব ভালোভাবে লিখতে হবে সার্চ ইঞ্জিনে 40% মানুষ description দেখে পোস্ট ওপেন করে ভালো SEO এর জন্য আপনার পোষ্টের meta description এ আপনার পোষ্টের সম্বন্ধিত 150-160 word লিখুন


Meta Title: সাধারণত Meta Title আপনার Permalinks  টা হয়ে থাকে।Meta টাইটেলে যতটা সম্ভব কম Length রাখবেন। মেটা টাইটেল এ যেন A, An,The এই সমস্ত word না থাকে । এগুলো সাধারণত সার্চ ইঞ্জিন ignore করে ।

3.Post Image

যখন আপনি কোন পোস্ট লিখেন তখন আপনিও এই পোস্টটিতে ইমেজ এড করার অপশন পান সমস্ত ব্লগার তাদের পোস্টে ইমেজ ব্যবহার করে কিন্তু কিছু লোক তাদের পোষ্টের ইমেজের SEO করেন না যার ফলে তারা ভাল রেঙ্ক পাইনা

যদি আপনি আপনার ব্লগ পোস্টে কোন ইমেজ অ্যাড করেন তাহলে ওই ইমেজটিতে কপিরাইট হওয়া চলবে না আর ওদিকে ভালভাবে ডিজাইন করে রি সাইজ করে তারপর আপনার পোস্টে ব্যবহার করুন

4.Image Alt Tag

যে কোন পোষ্টের ইমেজের SEO এর জন্য title tag আর alt tag খুবই গুরুত্বপূর্ণ এর ফলে গুগোল আপনার ইমেজটিকে ভালোভাবে ট্র্যাক করতে পারে আর আপনি ভালো রেজাল্ট পান যখন আপনি পোস্টে ফটো অ্যাড করেন তখন ওটিতে edit এর অপশনে আপনাকে title tag আর alt tag ব্যবহার করার অপশন পান

এখানে আপনি ঐ পোষ্টের সম্বন্ধিত alt tag ব্যবহার করুন আর ওই ইমেজ টিতে মেইন কি ওয়ার্ড এর সাথে সাথে আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ কিওয়ার্ড এড করুন এর ফলে আপনার পোষ্টের ইমেজের SEO হয়ে যায় আর পুরো পোস্টটিকে রেঙ্ক করাতে সাহায্য করে

5. Internal Links

ব্লগ পোস্টে ভিজিটরকে একটি পোস্ট থেকে অন্য পোস্টে ট্রান্সফার করার জন্য আপনার ব্লগের অন্যান্য পোস্ট এর লিঙ্ক অ্যাড করা হয় এটিকে Internal linking বলা হয়।

এর ফলে যে কোন ভিজিটর আপনার একটি পোষ্ট থেকে অন্য পোস্টে যেতে পারে আর এতে আপনার সাইটের বাউন্স রেট আর ট্রাফিক দুটোই ভালো হয় আর SEO এর জন্য internal link ব্যবহার করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ এটি আপনার পোস্টকে রেঙ্ক করতে খুবই সাহায্য করে যখন আপনি আপনার পোস্ট লিখেন তখন আপনাকে ঐ পোষ্টের সম্বন্ধিত অন্য পোস্টের লিঙ্ক অবশ্যই এড করা উচিত।

6. Post Keywords

পোস্টকে সার্চ রেজাল্টের top এ আনার জন্য কীওয়ার্ডস এর ব্যবহার করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ যে কোন ভিজিটর সার্চ ইঞ্জিনে কোন ওয়ার্ড বেশি সার্চ করে সার্চ ইঞ্জিন সেই ওয়ার্ড টিকে ট্র্যাক করে নেই সেটি হল কীওয়ার্ডস

আপনি Google Keywords Planer অথবা অন্য কোন টুল থেকে ভালো কিওয়ার্ড সার্চ করতে পারেন এটি আপনার পোষ্টের SEO এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয় যখন আপনি পোস্ট লিখেন তখন প্রথম এবং শেষ প্যারাগ্রাফ এ বেশি ব্যবহার করুন সার্চ ইঞ্জিন থেকে হাই ট্রাফিক আনার জন্য কিওয়ার্ড এর ব্যবহার বড় ভূমিকা নির্বাহ করে।

7. Post Heading

যখন আপনি পোস্ট লিখেন তখন তার প্যারাগ্রাফ কে বোঝার জন্য যে টাইটেল আর হেডলাইনস ব্যবহার করেন সেটিকে হেডিং বলা হয় এতে ভিজিটর আপনার পোস্টটি কে ভালোভাবে বুঝতে পারে

 ব্লগ পোষ্ট এডিটর এ H1-H6 পর্যন্ত মোট 6 হেডিং হয় যেগুলো আপনি আপনার প্রয়োজনীয়তা অনুসারে ব্যবহার করতে পারেন এটি SEO এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ যদি আপনি হেডিং এর ব্যবহার না করেন তাহলে পোষ্ট রেঙ্ক করা খুবই কঠিন হয়ে যায় আপনার পোষ্টের রেংকিং আর ভিজিটরের জন্য হেডিং এর ব্যবহার খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নির্বাহ করে

8. Post Sharing

পোস্ট লেখার পর সবাই তাদের পোস্টকে সোশ্যাল মিডিয়াতে অবশ্যই শেয়ার করেন যাতে তাদের বন্ধুরা ওই পোস্টের সম্বন্ধে জানতে পারে আর তারা ভাল ফলাফল পেতে পারে আপনি আপনার পোস্টটিকে সোশ্যাল একাউন্ট যেমন ফেসবুক, টুইটার, পিন্টারেস্ট ইত্যাদিতে শেয়ার করুন এতে Off Page SEO হয়ে যায়

এটি আপনার ব্লগের ভিজিটর বাড়ানোর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ আর সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট শেয়ার করে আপনি আপনার ব্লগের ডোমেন অথরিটি আর পেজ অথরিটি বাড়াতে পারেন জেটি 1st rank এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ

9. Post URL

যখন আপনি কোন পোস্টের টাইটেল লিখেন তখন তার URL permalink অটোমেটিক জেনারেট হয়ে যায় কিন্তু এটি SEO এর জন্য ততটা ভালো নয় এই জন্য আপনাকে আপনার পোস্ট URL ম্যানুয়ালি জেনারেট করা উচিত

আপনি আপনার ব্লগ পোষ্টের URL এ কিবোর্ড এর ব্যবহার করে আপনার পোস্টটি কে ভালোভাবে SEO করতে পারেন যখন আপনি পোস্ট এর URL জেনারেট করবেন তখন সেটাতে 1-2 ইউ আর এর ব্যবহার করুন আর SEO এর জন্য ভালো URL লিখুন আর পোস্ট URL আপনার পোস্ট টাইটেল সম্বন্ধিত হলে ভালো হয়

10. Post Content Length

আপনার পোষ্টের SEO এর জন্য আপনি কত ওয়ার্ডের পোস্ট লিখেন সেটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ যদি আপনি আপনার পোস্ট কম ওয়ার্ডের লেখেন তাহলে এই পোস্টটির রেঙ্ক পেতে অনেক বেশি সময় লেগে যায় অথবা ওই পোস্টটি কখনো রেঙ্ক নাও হতে পারে

কিন্তু যদি আপনি মিনিমাম 700-1000 ওয়ার্ড পর্যন্ত পোস্ট লিখেন তাহলে আপনার পোষ্টের SEO খুব ভালোভাবে হয়ে যায় আর আপনার পোস্টটি রেঙ্ক করতে খুবই সহজ হয় এবার থেকে যখন আপনি কোন পোস্ট লিখবেন তখন কম করে হলেও আপনার পোস্টে 1000 ওয়ার্ড অবশ্যই ব্যবহার করবেন

Note:- পোস্টটিকে বড় করতে গিয়ে কোন ফালতু ওয়ার্ড ব্যবহার করবেন না পোস্টে যেটি গুরুত্বপূর্ণ সেটি প্যারাগ্রাফ করে লিখুন।

এতক্ষণ ধরে আমরা জানলাম ব্লগে SEO ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল কিভাবে লিখবেন এই পোস্ট দিয়ে আপনাদের সম্পূর্ণ সংক্ষেপে জানানো হয়েছে আশা করছি আপনাদের এই তথ্যটি অবশ্যই ভালো লেগেছে

যদি আপনাদের এই আর্টিকেলটি পড়ে ভালো লেগে থাকে তাহলে আপনারা আপনাদের সোশ্যাল মিডিয়াতে অবশ্যই শেয়ার করুন।







Post a Comment

Previous Post Next Post