Facebook SDK

ইউটিউবে কত ভিউ এ কত আয়ঃ ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়?

আসসালামু-অলাইকুম, বর্তমানে যারাই ইউটিউব চ্যানেল খুলার পরিকল্পনা করে, তারা অনেকেই জানতে চায় ইউটিউবে প্রতি ভিউতে কত টাকা দেয় বা প্রতি১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়?   আপনি যদি একটি নতুন ইউটিউব চ্যানেল খুলার  চিন্তা করেন তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য।

আপনি যদি ইউটিউব ওপেন করে সার্চবার এ টাইপ করেন ১০০০ ভিউতে কত টাকা পাওয়া যায়  তাহলে দেখবেন অনেক  ভিডিও চল  আসবে যেখানে কেও বলে ১০০০ ভিউতে ১ ডলার কেউ বলে ২ ডলার আবার কেউ বলে ৫ ডলার।তো চলেন একটু ভেঙ্গে জানার চেস্ট করি।

ইউটিউব প্রতি ভিউতে কত টাকা দেয় বা প্রতি ১০০০ ভিউ এ কত টাকা দেয়?

ইউটিউবে কত ভিউ এ কত আয়ঃ ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়?

প্রথমত একটা কথা জেনে রাখুন ভিউ দেখে কোনো আয় নির্ধারিত হয় না।একটি ভিডিওতে কত এড মানুষে দেখছে তার উপর পয়সা পাওয়া যায়।সেটা ১০০০ ভিউতে ১ ডলার ও হতে পারে ৫ ডলার ও হতে পারে,আবার এড না এলে কোনো টাকাই পাবেন না।

উপরে আমি যেমন বললাম ইউটিউব ভিউ দেখে টাকা দেয় না,আপনার ভিডিও তে এডসেন্স এড চালায় সেই অ্যাড আপনার চ্যানেল আসা ভিজিটররা দেখে তার বিনিময়ে আপনি টাকা পান। সেটা ১ ডলার হতে পারে বা ৫ ডলার ও হতে পরে।

এবার ধরুন আপনার কোনো একটি ভিডিও ১০০০ জন ভিউ করলো সেখানে ৫০ টা অ্যাড ইউটটিব দেখালো তাহলে সেখানে আপনি যা টাকা পাবেন ৩০ টি বা ৪০ টি অ্যাড দেখালে নিশ্চই কম টাকা পাবেন।এটা ইউটউব এর অ্যালগরিদম উপর নির্ভর করে,কখন কোন ভিডিও তে কত অ্যাড চলবে।

মূলত একজন ইউটিউবার তার ভিডিও এর মধ্যে যে পরিমান বিজ্ঞাপন শো হয় সেই বিজ্ঞাপনের CPC, CTR ও RPM হিসেবে ইউটিউব এর কাছ থেকে টাকা পেয়ে থাকে। সে জন্য ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয় বা YouTube এ কত Views এ কত টাকা পাওয়া যায় সেটি জানার পূর্বে এর সহিত জড়িত আনুষাঙ্গিক বিষয় জেনে নিতে হবে।

যায় হোক নিচে কয়েকটি পয়েন্ট দিয়ে বুঝানোর চেষ্টা করেছি একে একে সেই পয়েন্ট গুলো পড়ুন। 

ইউটিউব কিভাবে টাকা দেয় ?

নতুন ইউটিউবারদের জন্য এটিও অত্যান্ত কমন একটি প্রশ্ন। অনেকে মনেকরে ভিডিও আপলোড করে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার বিষয় একটি হাস্যকর ও নিছক গল্প ছাড়া আর কিছুই না। কিন্তু এটা চরম সত্য যে, আপনি ঘরে বসে ইউটিউবে কাজ করে গুগল এর কাছ থেকে ফরেন রেমিটেন্স নিয়ে আসতে পারবেন।

ইউটিউবে কত ভিউ এ কত আয়ঃ ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়?

সাধারণত ইউটিউবে যখন আপনার ইনকাম ১০ ডলার পূর্ণ হবে তখন গুগল এ্যাডসেন্স টিম আপনার ঠিকানা, ব্যাংক একাউন্ট ও গুগল এ্যাডসেন্স একাউন্ট ভেরিফিকেশন করে নেওয়ার জন্য বলবে। আপনি যখন এ্যাডসেন্স এর সেটিংস অপশন হতে আপনার ঠিকানা, ব্যাংক একাউন্ট ও এ্যাডসেন্স একাউন্ট ভেরিফিকেশন করার জন্য আবেদন করবেন তখন গুগল আপনার স্থানীয় ঠিকানার পোস্ট অফিসে একটি চিঠি পাঠাবে।

ইউটিউবে কত ভিউ এ কত আয়ঃ ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়?

সেই চিঠিতে গুগল এ্যাডসেন্স এর অফিসিয়াল সীলমোহর করা থাকবে। এ্যাডসেন্স এর চিঠি খোলার পর আপনি একটি পিন নম্বর দেখতে পাবেন। উক্ত পিন নম্বরটি ব্যবহার করে আপনার ঠিকানা, ব্যাংক একাউন্ট ও এ্যাডসেন্স একাউন্ট ভেরিফিকেশন করে নিতে পারবেন। তখন থেকে আপনার এ্যাডসেন্স একাউন্টটি ভেরিফাইড শো করবে এবং ভেরিফাইড এ্যাডসেন্স একাউন্টকে গুগল অনেক গুরুত্ব দিয়ে থাকে।

তারপর ইউটিউবে যখন আপনার ইনকাম ১০০ ডলার পূর্ণ হবে তখন আপনি সেই টাকা উত্তোলন করার অপশন পাবেন। গুগল এ্যাডসেন্স একাউন্ট থেকে টাকা উত্তোলনের আবেদন করার পর গুগল আপনার টাকা বাংলাদেশ ব্যাংকে পাঠিয়ে দেবে। বাংলাদেশ ব্যাংক সেই টাকা আপনার কাঙ্খিত ব্যাংক একাউন্টে পাঠাবে। ভারতের ক্ষেত্রে সম্ভবত সেই রুপি SBI এর মাধ্যমে কাঙ্খিত ব্যাংকে পৌছে দেয়। মূলত এইভাবে ইউটিউব আপনার উপার্জিত টাকা হাতে পৌছে দিয়ে থাকে।

ইউটিউবে কত ভিউ এ কত আয়ঃ ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়?

টাকার পরিমান অ্যাড এর উপর নির্ভর করে,মূল কথা হচ্ছে আপনার চ্যানেল যদি সেই ক্যাটাগরিতে পরে যে ক্যাটাগরির অ্যাড মার্কেটে ডিমান্ট বেশি তাহলে সেই অ্যাড এর দামও বেশি হবে।তাই সেই অ্যাড গুলো যদি আপনার ভিডিওতে চলে তাহলে স্বাভাবিক ভাবে কম ভিউও বেশি টাকা পাবেন।

যেমন শেয়ারবাজার,ডিজিটাল মার্কেটিং এই সব টপিক চ্যানেল এর অ্যাড এর দাম অনেক বেশি,তাই যাদের এই ক্যাটাগরির চ্যানেল আছে তাদের আয় ও বেশি হবে।

ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায় কি?

সাধরণত একজন নতুন বা নরমাল ইউটিউবার এর আয়ের প্রধান উৎস হচ্ছে Google AdSense. একটি ইউটিউব চ্যানেল যখন ইউটিউব এর নির্ধারিত লক্ষ্য অর্জন করে ফেলে তখন তার চ্যালেন এর ভিডিওগুলো মনিটাইজ করার জন্য Google AdSene এর কাছে আবেদন করে।

 গুগল এ্যাডসেন্স টিম আবেদন যাচাই করার পর সেই চ্যানেলটি মনিটাইজ করার মত উপযুক্ত মনেকরলে বা ভালোমানের ভিডিও থাকলে তখন চ্যানেলটির এ্যাডসেন্স অনুমোদন করে। অনুমোদন পাওয়ার পর সেই ইউটিউব চ্যানেল এর ভিডিও যখন কেউ দেখে তখন ভিডিওতে বিজ্ঞাপন শো হতে থাকে। তখন থেকে বিজ্ঞাপন ভিউ হিসাব করে সাধারণত ইউটিউব একজন ইউটিউবারকে টাকা দিয়ে থাকে। এছাড়া একজন জনপ্রিয় ইউটিবার নিম্নের উপায় হতে আয় করতে পারেন।
  • অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং (পন্য প্রমোট)।
  • প্রোডাক্ট রিভিউ (স্পনসরশিপ)।
  • নিজেস্ব পোডাক্ট বিক্রি করে।

ইউটিউব চ্যানেল দিয়ে AdSense অনুমোদন পাওয়ার উপায় কি?

আমি আগের প্যারেতে বলেছি যে, ইউটিউব এর নির্ধারিত লক্ষ্য অর্জন হওয়ার পর একটি ইউটিউব চ্যালেন এর ভিডিও মনিটাইজ করার জন্য Google AdSene এর কাছে আবেদন করতে হয়। ইউটিউবে ভিডিও মনিটাইজ করার জন্য আপনার চ্যালেনে এক হাজার সাবস্ক্রাইবার ও এক বছরে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম এর মাইল ফলক অর্জন করতে হবে। 

ইউটিউবে কত ভিউ এ কত আয়ঃ ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়?

২০১৯ সালের পূর্বে এ রকম কোন শর্ত ছিল না কিন্তু ২০১৯ সাল হতে এখনো পর্যন্ত এই নিয়ম বলবৎ আছে। কাজেই আপনি বুঝতেই পারছেন শুধু একটি ইউটিউব চ্যানেল হলেই ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করা যায় না। টাকা ইনকাম করতে হলে ইউটিউবে আপনার জনপ্রিয়তা অবশ্যই থাকতে হবে।

ইউটিউবে কত ভিউ হওয়ার পর আয় শুরু করা যায়?

২০১৯ সালের পূর্বে ইউটিউবে গুগল এ্যাডসেন্স এর মাধ্যমে আয় শুরু করার ক্ষেত্রে কোন ধরা বাধা নিয়ম ছিল না। 

কিন্তু ইউটিউব ২০১৯ সালে তাদের প্রোগ্রাম পলিসি আপডেট করে। তাদের নতুন পলিসি অনুসারে ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজ করার জন্য আপনার ইউটিউব চ্যানেলে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার ও এক বছরে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম থাকতে হবে। 

অতএব ইউটিউবে এক বছরে মিনিমাম ১০০০ ঘন্টা ভিডিও ভিউ হওয়ার পর আপনি ইউটিউব থেকে টাকা আয় করা শুরু করতে পারবেন।

ইউটিউবে আয়ের হিসাব বা ক্যালকুলেশন?

আসলে ইউটিউব কত ভিউতে কত টাকা দেয় বা ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয় সেটা সঠিকভাবে কোন ইউটিউবার বলতে পারবে না বা এই হিসাবটি সঠিকভাবে কেউই মিলাতে পারবে না। কারণ আমি আগেও বলেছি আপনি ইউটিউবে ভিডিও দেখার সময় ভালোভাবে লক্ষ্য করলে দেখবেন যে, সবসময় ভিডিওতে বিজ্ঞাপন শো হয় না।

সেই ক্ষেত্রে একটি ভিডিও ১০০০ বার দেখার পরেও যদি কোন বিজ্ঞাপন শো না হয় তাহলে সেই ১০০০ ভিউ থেকে ইউটিউব কোন টাকা দেবে না। আবার এমনো হয় যে, একটি ভিডিও ১০০০ বার দেখার পর ৫০০ বার বিজ্ঞাপন শো হয়েছে। এই ক্ষেত্রে দেখা যাবে ৫০০ ভিউ এর জন্য আপনি ৫-৬ ডলার ইনকাম করে ফেলেছেন। আবার কোন কোন ক্ষেত্রে দেখা যাবে ১০০০ ভিউ হওয়ার সত্বেও ভিডিওতে মাত্র ৫০ টিরও কম বিজ্ঞাপন শো হয়েছে। এ ক্ষেত্রে আপনি ৫০ সেন্ট (আধা ডলার) ইনকাম করতে পারবেন না।


আবার কোন কোন ক্ষেত্রে দেখা যায় ভিডিও ১০০০ বার ভিউ হওয়ার পর ভিডিওতে মাত্র ৩০ টি বিজ্ঞাপন শো হয়েছে অথচ ২-৩ ডলার ইনকাম হয়েগেছে। তার কারণ হচ্ছে উন্নতমানের দেশ (যেমন-লন্ডন, আমেরিকা, ইতালি) থেকে ভিডিওতে কম বিজ্ঞাপন শো হলেও বেশি টাকা ইনকাম করা যায়। তাছাড়া ভিডিওতে শো হওয়া বিজ্ঞাপনে অর্গানিক ক্লিক বেশি হলে অল্প বিজ্ঞাপন শো করেও বেশি টাকা আয় করা সম্ভব হয়। (নোটঃ নরমালি ভিডিওতে ২০%-৩০% বিজ্ঞাপন শো হয়ে থাকে)।

আসলে ইউটিউব মূলত CPC, CTR ও RPM সহ আরো আনুষাঙ্গিক বিষয় বিবেচনা করা টাকা দিয়ে থাকে। এ ক্ষেত্রে নিখুত হিসাব মিলান কোনভাবে সম্ভব নয়। গুগল এ্যাডসেন্স CPC, CTR ও RPM বিষয়ে আমাদের ব্লগে একটি বিস্তারিত পোস্ট রয়েছে। ইউটিউবে আয়ের হিসাব বা কালকুলেশন মিলাতে চাইলে পোস্টটি পড়ে আসবেন। তাহলে এ বিষয়ে আপনি আরো অধিক ক্লিয়ার হতে পারবেন।

আপনার ভিডিও তে অ্যাড এর CPM কত হচ্ছে CPC কত হচ্ছে তার উপর নির্ভর করে অনেকটা।একটা কথা মনে রাখবেন আপনার ভিডিও তে যদি ১০ হাজার ভিউ হয় কিন্তু সেখানে কোনো অ্যাড না আসে তাহলে আপনি সেই ১০ হাজার ভিউ এর কোনো টাকা পাবেন না।সেরকম ভাবে এডসেন্স ওই ভিডিও তে যতবার অ্যাড চালাবে এবং যখন ১০০০ বার অ্যাড ভিউ সম্পূর্ণ হবে তখন আপনার ১০০০ ভিউ তে যত cpm থাকবে তত টাকা পাবেন।CPM কে (Cost per mille) বলা হয় । একথায় বলতে পারেন COST PER 1000 Ads VIEWS।

CPM – আপনার ভিডিও তে যে অ্যাড গুলো চলে তাতে কত বার ক্লিক করছে ,পুরো অ্যাড দেখছে কি না,স্কিপ করছেন কত জন,ভিডিও তে যে বিজ্ঞাপনের চলছে তার মূল্য কেমন,কোন দেশ থেকে দেখছেন এই প্রভিতি বিষয়ের উপর CPM নির্ধারিত হয়। 

CPC- সিপিসি মানে COST PER CLICK, আপনার ভিডিও যে অ্যাড আসছে তাতে ক্লিক করলে যত টাকা এডসেন্স দিবে তাকে CPC রেট বলা হয় । AD click বা CPC প্রায় $০.২ থেকে $০.৫ পাওয়া যায়।এবার ধরুন আপনার একটি ভিডিও ১০০০০ ভিউ  হয়েছে সেখানে ১০০ বার AD click হয়েছে এবং তার রেট ছিলো ০.২$ তাহলে ২০$ আপনি পাবেন মোটামোটি ১৪০০ টাকা।যদি ০.৪$ ডলার হতো তাহলে ২৮০০ টাকা পেতেন। এবার বিভিন্ন দেশের,বিভিন্ন অ্যাড এর CPC আলাদা কম বেশি হয় । 


 বিভিন্ন দেশের অ্যাড এর বিভিন্ন মূল্য থাকে।আপনার চ্যানেল এর ভিডিও গুলো ইন্ডিয়া থেকে আশা ভিসিটর রা এই দেশের অ্যাড দেখতে পাবে ,কিন্তু ওই ভিডিও টি যখন আমেরিকা বা ইংল্যান্ড থেকে যারা দেখবে তখন ইন্ডিয়ার অ্যাড সেখানে চলবে না, সেখানে সেই দেশের অ্যাড চলবে। আর ইন্ডিয়া ,বাংলাদেশ বা দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলির অ্যাড এর মূল্য তুলনায় কম আমেরিকা বা ইংল্যান্ড অ্যাড থেকে।

যদি আপনি ভারতে কোনো ভিডিওতে ১০০ টাকা পান তাহলে আমেরিকা বা ইংল্যান্ড  থেকে ২০০ টাকা পাবেন। 

আবার বিভিন্ন উৎসব এর সময় সাধারণত অ্যাড এর CPC এবং CPM বেশি থাকে, কারণ তখন সবাই কেনা কাটা করে আর বিজ্ঞাপনদাতারা এই সময় সমস্ত প্লাটফর্মে বিপুল পরিমানে টাকা বিনিয়োগ করে তাদের প্রোডাক্ট কে প্রচার করার জন্য।

আপনি হয়তো ফলো করেছেন ঈদ বা পূজোতে পেপার বা টিভিতে বিজ্ঞাপন বেশি দেখতে পাওয়া যায়,সেটা ইউটউব এর ক্ষেত্র ও প্রযোজ্য। তারফলে সেই সময় ভিডিও তে বিজ্ঞাপন দেখার CPC এবং CPM বেশি পাওয়া যায়।


কোন দেশ থেকে ভিডিও ভিউ হলে ইউটিউব বেশি টাকা দেয়?

দেশ ভেদে এ্যাডসেন্স বিজ্ঞাপনের ক্লিকরেট ভিন্ন হয়ে থাকে। কিছু দেশ রয়েছে যেগুলো থেকে ইউটিউবের বিজ্ঞাপনে ক্লিক করলে বেশি টাকা পাওয়া যায়। আবার কিছু কিছু দেশ আছে যেগুলো বিজ্ঞাপনের ক্লিক রেট খুবই কম হয়। কোন দেশের বিজ্ঞাপনের ক্লিক রেট কত সেটি সংক্ষেপে দেখে নেওয়া যাক।

কোন কোন দেশে এ্যাডসেন্স বিজ্ঞাপ ক্লিক রেট বেশি?

  • আমেরিকা - ০.৬১
  • অস্ট্রেলিয়া - ০.৫৭
  • লন্ডন - ০.৪৮
  • ফিনল্যান্ড - ০.৪৫
  • কানাডা - ০.৪৫
  • অস্ট্রিয়া - ০.৪৫
  • নিউজিল্যান্ড - ০.৩৩
  • সুইডেন - ০.৩১
  • আয়ারল্যান্ড - ০.৩১
  • ডেনমার্ক - ০.২৮
  • সিঙ্গাপুর - ০.২৭
  • দক্ষিণ আফ্রিকা - ০.২৬

কোন কোন দেশে এ্যাডসেন্স বিজ্ঞাপ ক্লিক রেট কম?

  • সিরিয়া, সুদান, সেনেগাল, মাদাগাস্কার, জর্জিয়া, ফরাসি পলিনেশিয়া ও বুর্কিনা ফাসো - ০.০১।
  • সেন্ট লুসিয়া, সেচেলস, মরোক্কো, মালি, মালাউই, লিথুয়ানিয়া, লিবিয়া, লাইবেরিয়া, চিলি, ক্যারিবিয়ান নেদারল্যান্ডস, কম্বোডিয়া, বুরুন্ডি, বেনিন ও অ্যাঙ্গোলা – ০.০২।
  • ভিয়েতনাম, ইউক্রেন, তাইওয়ান, সোয়াজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, রুয়ান্ডা, প্যারাগুয়ে, পাপুয়া নিউ গিনি, নেপাল, মরিশাস, ম্যাকাও, লেবানন, লাটভিয়া, জর্দান, ইরান, গুয়াম, ইথিওপিয়া, কঙ্গো-ব্রাজাভিল, বলিভিয়া, বেলারুশ, ভারত ও বাংলাদেশ – ০.০৩।
  • সলোমন দ্বীপপুঞ্জ, সার্বিয়া, ফিলিপাইন, পেরু, পাকিস্তান, নামিবিয়া, মোজাম্বিক, মালদ্বীপ, ম্যাসেডোনিয়া (এফওয়াইআরএম), ইরাক, গায়ানা, কেপ ভার্দে, ভুটান, বার্বাডোস ও আমেরিকান সামোয়া – ০.০৪
  • তানজানিয়া, মায়ানমার (বার্মা), মোল্দোভা, হাইতি, ঘানা, ফিজি, কঙ্গো-কিনশা ও বুলগেরিয়া – ০.০৫।

সাধারণত উন্নত দেশের বিজ্ঞাপন ক্লিকরেট বেশি হয়ে থাকে। কারণ উন্নত দেশগুলো গুগল এর কাছে বিজ্ঞাপন দেওয়ার সময় বেশি টাকা পরিশোধ করে থাকে। সে জন্য গুগল এ্যাডসেন্স বিজ্ঞাপন উন্নত দেশে শো হলে সেই দেশের বিজ্ঞাপন Display হয় বিধায় ক্লিক রেট বেশি থাকে। পক্ষান্তরে সল্প উন্নত দেশগুলো বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে কম টাকা খরছ করে বিধায় ঐ দেশগুলোর এ্যাডসেন্স বিজ্ঞাপন রেট তুলনামূলকভাবে অনেক কম হয়।

বিশ্বের জনপ্রিয় কয়েকজন ইউটিউবারের আয়ের পরিমান?

ইউটিউবে কত ভিউ এ কত আয়ঃ ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়?

আপনি ইউটিউবে কাজ করে মাসে কি পরিমান আয় করতে পারবেন সেই সম্পর্কে ধারনা দেওয়ার সুবিধার্তে আমরা বিশ্বের কয়েকজন জনপ্রিয় ইউটিউবারদের আয় সম্পর্কে সংক্ষেপে দেখে নিচ্ছি।

  • Ryan Kaji - $26 million (প্রোডাক্ট রিভিউ)।
  • Dude Perfect - $20 million (গ্যামিং)।
  • Anastasia Radzinskaya - $18 million (ফানি)
  • Rhett and Link - $17.5 million (কমেডি)।
  • Jeffree Start - $17 million (লাইফস্ট্যাইল এন্ড মেকআপ)।
  • Preston - $14 million (গ্যামিং)।
  • Markiplier - $13 million (ভিডিও গ্যাম)।
  • PewDiePie - $13 million (ভিডিও গ্যাম এন্ড কমেডি)।
  • Dan TDM - $12 million (গ্যামিং)
উপরে দেখতে পাচ্ছেন যে, শুধুমাত্র ইউটিউবে গ্যামিং করে বৎসরে কিভাবে মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার আয় করে নিচ্ছেন।

জনপ্রিয় কয়েকজন বাঙ্গালি ইউটিউবারের আয়ের পরিমান?

 এখন আমরা বাংলাদেশ ও কলকতার কয়েকজন জনপ্রিয় ইউটিউবারদের আয়ের পরিমান দেখব।
  • মায়াজাল - $138.9K-$2.2M (বিনোদন)।
  • পিনিকপাই - $49K-$783.5K (শিক্ষা)।
  • TAWHID AFRIDI - $25.8K-$412.8K (বিনোদন)।
  • ATC Android ToTo Company - $11.6K-$185.3K (টেক)।
  • Sohag360 - $6.7K-$107.8K (টেক)।
  • Cooking Studio by Umme - $14.8K-$236.1K (রেসিপি)।
উপরের চ্যানেল ছাড়াও ইউটিউবে অনেক ভালোমানের বাংলা ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে যারা মাসে এক থেকে দেড় লাখ টাকা ইনকাম করছে। সুতরাং আপনি বুঝতেই পারছেন একটি ইউটিউব চ্যানেলকে ভালোমানের প্লাটফর্মে নিয়ে যেতে পারলে অপনি মাসে খুব সহজে লাখ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।


শেষ কথাঃ তাহলে বন্ধুরা,Youtube এ কত views এ কত টাকা, ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়, ইউটিউব থেকে কত আয় করা যায়,এই সব নানান প্রশ্নের উত্তর হচ্ছে আপনার চ্যানেল ভিডিও কনটেন্ট,CPC-CPM কত পাচ্ছেন,কোন দেশ থেকে ভিউ আসছে এইসব বিভিন্ন জিনিসের উপরে নির্ভর করে। কোনো নির্দিষ্ট সংখ্যা বা টাকার পরিমান বলা অসম্ভব। 

কেউ ১০০০ ভিউ তে ১ ডলার পাচ্ছেন আবার কেউ ১০০০ ভিউ তে ৫ ডলার পাচ্ছেন।তাই, আপনি মন দিয়ে ভালো ভাবে কনটেন্ট তৈরী করুন আপনার ভিডিও এর ভিউ ও বাড়বে তারসঙ্গে  ইনকাম ও। আনুমানিক বলা যেতে পারে india, bangladesh, pakistan এই দেশগুলিতে ১০০০Ads VIEWS ২-৩$ পাওয়া সম্ভব তবে এটা সবার জন্য প্রযোজ্য না।

সর্বোপরি আমাদের পোস্টটি আপনার কাছে কেমন লেগেছে সেটি জানাতে ভূলবেন না। আর কোন সমস্যা হলে অবশ্যই কমেন্ট করবেন।


2 Comments

  1. আপনার <a href="https://www.admissiontune.com>ব্লগের</a> জন্য শুভকামনা রইলো ভাইয়া। এগিয়ে যান সামনে...

    ReplyDelete
  2. https://bestincomeidea.com/you-can-earn-a-lifetime-income-by-joining-the-easy-affiliate-program/
    সহজ affiliate এফিলিয়েট প্রগ্রামে জয়েন করে আজীবন ইনকাম করতে পারবেন।

    ReplyDelete

Post a Comment

Previous Post Next Post