Facebook SDK

আসসালামু অলাইকুম....! কেমন আছেন সবাই..??



আমি আপনাদের এই আর্টিকেলের মধ্যে ১৫০ টিরও বেশি ডু-ফলো ব্যাকলিংক ওয়েবসাইটের তালিকা দিয়ে দেব। তার আগে আপনাদের এই আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ার জন্য পরামর্শ দিচ্ছি। কারণ এই আর্টিকেলটি একবার মনোযোগ দিয়ে পড়তে পারলে আপনারা খুব সহজেই জানতে পারবেন কিভাবে ডু-ফলো ব্যাকলিংক তৈরি করবেন?কিভাবে ডু-ফলো ব্যাকলিংক কাজ করে?কিভাবে ডু-ফলো ব্যাকলিংক চেক করবেন?ডু-ফলো ব্যাকলিংক করা জরুরী কেন? তাই আর্টিকেল টি সম্পূর্ণ পড়ুন। আশা করি আর এই আর্টিকেলটি একবার পড়লে আপনাদের আর কোনও কিছু অজানা থাকবে না

আজ আমি আপনাদেরকে এই বিষয় নিয়েই আলোচনা করবো যে, কিভাবে আপনার সাইটে বা ব্লগে আশানুরুপ ভিজিটরে নিয়ে আসতে পারবেন খুব কম পরিশ্রমে এবং কম সময়ের মধ্যে।তাই আমি আশা করি সবাই পুরো আর্টিকেলটিকে মনোযোগ দিয়ে শেষ পর্যন্ত পড়বেন। যদি সত্যিই আপনাদের ওয়েবসাইটে বা ব্লগে ভিজিটর বাড়াতে চান তাহলে একটু ধৈর্য ধরে আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়তে হবে।

যেকোনো ওয়েবসাইট বা ব্লগার সাইটকে গুগলের ফার্স্ট পেজে নিয়ে আসতে হলে সেই সাইটের জন্য ব্যাকলিংক করা অত্যান্ত জরুরী। আমি নয় বরং বিখ্যাত বিখ্যাত এসইও বিশেষজ্ঞরা এই কথায় বলেছেন। এসইও বা সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন এর দৃষ্টিকোণ থেকে দেখলে যেকোন ওয়েবসাইটের জন্য ব্যাকলিংক সত্যিই খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা বহন করে। এটি ওয়েবসাইটের ট্রাফিক প্রচুর পরিমাণে বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে পাশাপাশি গুগল, বিং এবং ইয়াহুর মত সার্চ ইঞ্জিনে আপনার ওয়েব সাইটের র‍্যাঙ্ককিং অনেকগুন বাড়িয়ে দেয়। তবে সব ধরণের ব্যাকলিংক কার্যকরী নয়। আমরা সকলেই জানি ব্যাকলিংক দুই প্রকার যথাঃ ডু-ফলো ব্যাকলিংক ও নো -ফলো ব্যাকলিংক। মূলত ডু-ফলো ব্যাকলিংক একটি ওয়েবসাইটকে র‍্যাঙ্ক করতে সাহায্য করে পাশাপাশি প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর আনতে সাহায্য করে।

ডু-ফলো ব্যাকলিংক কি?

মনে করুন,আপনার কোন আর্টিকেলের মধ্যে অন্য কোন ওয়েবসাইটের লিংক দিতে চাইছেন। কিন্তু আপনি চাচ্ছেন গুগল আপনার সাইট ক্রল করার সাথে সাথে ওই ব্যাকলিংক করা সাইটটিকেও যাতে ক্রল করে। আর এজন্য আপনি যেভাবে লিংক তৈরি করবেন একে বলে ডু-ফলো ব্যাকলিংক

ডু ফলো ব্যাকলিংক এসইও এর জন্য বিরাট ভূমিকা পালন করে। তাই আপনার সাইটের ব্যাকলিংক করতে হলে ২০-৬০% ডু-ফলো ব্যাকলিংক করার চেষ্টা করুন।

ডু-ফলো লিংক কোডঃ <a href=”https://www.topbanglapages.com”> topbanglapages</

নো ফলো ব্যাকলিংক কি? 

আরেকটি লিংকিং হচ্ছে নো- ফলো ব্যাকলিংক। নো ফলো ব্যাকলিংক হচ্ছে ডু-ফলো ব্যাকলিংকের উল্টো। মানে কোনো সাইটকে লিংক দিবেন কিন্তু গুগলকে ঐ লিংকটি দ্বারা সাইটটি ক্রল করার জন্য মানা করবেন। অর্থাৎ নো- ফলো ব্যাকলিংক হলে গুগল বা বিং সার্চ ইঞ্জিন ঐ লিংকে প্রবেশ করবেনা।

নো ফলো ব্যাকলিংক কোডঃ <a href=”https://www.topbanglapages.com” rel=”nofollow”>topbanglapages</a>


কিভাবে ডু ফলো ব্যকলিংক তৈরি করব?

র‍্যাঙ্ক করানোর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি কাজ। এই লেখাটিতে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে কিভাবে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য ডু ফলো ব্যকলিংক তৈরি করবেন, do follow backlink তৈরির নিয়ম কানুন সম্পর্কে আলোচনা করবো। Do follow ব্যকলিংক তৈরি করতে হলে আপনাকে প্রথমে এমন কিছু ওয়েবসাইট খুঁজে বের করতে হবে যেই সাইট গুলো ডু ফলো ব্যকলিংক দিয়ে থাকে। গুগল এ সার্চ দিয়ে এরকম অনেক সাইট এর লিস্ট পাবেন , যার থেকে আপনার সাইটের জন্য সহজেই ডু ফলো ব্যকলিংক পেতে পারেন। তবে আপনাকে গুগলে সার্চ দিয়ে কষ্ট করে ডু-ফলো ওয়েবসাইটের লিস্ট বের করতে হবে না। আমি আপনাদের একদম ফ্রিতে ১৫০ টির বেশি ডু-ফলো  ওয়েবসাইটের তালিকা দিয়ে দেব। আপনারা সেখান থেকেই খুব সহজেই হাই কুয়ালিটি ডু-ফলো ব্যাকলিংক তৈরি করতে পারবেন।

কিভাবে বুঝবেন আপনার ব্যাকলিংক কাজ করছে? 

এটা বুঝতে হলে আপনাকে পেইজের বা ঐ সাইটের নির্দিষ্ট পেজ টিতে যেতে হবে ( যেখানে আপনার লিংক দিয়েছেন )সেই লিংকের উপর মাউসের কারসরটি রেখে মাউসের রাইট সাইডে ক্লিক করবেন তারপর একদম নিচেই "inspect" অপশনে ক্লিক করলে HTMLকোড দেখতে পারবেন। সেখান থেকেই আপনি খুব সহজেই বুঝতে পারবেন আপনার লিংকটি ডু-ফলো নাকি নো-ফলো। এখন  আপনার সাইটের কোডে যদি rel="nofollow" লেখা থাকে তাহলে এই লিংকটি তেমন কোন কাজে আসবে না। যদি না থাকে তবে বুঝতে পারবেন আপনার সাইটের জন্য ডু-ফলো ব্যকলিংক তৈরি হয়ে গেছে।

ডু ফলো ব্যাকলিংকের জন্য ডিএ  প্রোফাইল সাইট গুলিই ভালো আর এগুলো খুব সহজেই তৈরি করা যায়। এসকল সাইটের কনটেন্ট তাড়াতাড়ি বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিনে ইন্ডেক্স করে। প্রোফাইল লিংক তৈরি হচ্ছে অফ পেজ এসইও করার একটি জনপ্রিয় মাধ্যম। আর এর মাধ্যমে নিজের সাইটকে জনসাধারণের কাছে খুব সহজেই পৌছানো যায়। সোশ্যাল মিডিয়া সাইট গুলোতে নিজের ব্লগের লিংক শেয়ার দেয়া যায়। প্রোফাইল তৈরির সাইটের মাধ্যমে সহজেই আপনার ওয়েবসাইটের টার্গেট ব্যবহারকারীদের কাছে পৌঁছিয়ে দেওয়া যায়। উন্নত মানের ডিএ প্রোফাইল ব্যাকলিংক তৈরির সাইটগুলোর একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা হলো এরা আপনাকে অনেকদিন ডু-ফলো (Dofollow) প্রোফাইল ব্যাকলিংক সরবরাহ করবে। এখানে কিছু ক্যাটাগরি আছে যেগুলতে আপনাকে অবশ্যই প্রোফাইল তৈরি করতে হবে যদি কোয়ালিটি ব্যাকলিংক পেতে চান। প্রোফাইল সাবমিশন সাইট সত্যিই খুবই গুরুত্বপূর্ণ যেমন গুরুত্বপূর্ণ সোশ্যাল মিডিয়া বুকমার্কিং সাইট, ফোরাম সাবমিশন সাইট, ডিরেক্টরি সাবমিশন সাইট, বিজনেস লিস্টিং সাইট এবং অন্যান্য কিছু কৌশল যা ব্যাকলিংক পেতে এবং সাইটে ট্র্যাফিক বাড়াতে সাহায্য করে। 

এই আর্টিকেলে, আমরা  জানবো কীভাবে আপনার সাইটের জন্য উন্নত মানের ডিএ ওয়েবসাইটগুলোর মধ্যে নিজের প্রোফাইল ব্যাকলিংক তালিকা তৈরি করতে হয় এবং এই প্রোফাইল সাইটগুলি থেকে গুণগতমানের ডু-ফলো ব্যাকলিংক কীভাবে পাওয়া যায় সে সম্পর্কে।

কিভাবে প্রোফাইল তৈরি করে ওয়েবসাইটের জন্য ডু-ফলো ব্যাকলিংক তৈরি করব?

  • নিচে দেওয়া প্রত্যেক ওয়েবসাইট একের পর এক প্রোফাইল সাইটগুলি দেখুন এবং কিছু বাছাই করুন এবং সেখানে প্রোফাইল ব্যাকলিংক তৈরি করুন।  
  • আপনার নাম বা ব্যবহারকারীর নাম, ইমেল আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে আরো কিছু তথ্য চাইলে সেগুলো প্রদান করে সাইটের মধ্যে সাইন আপ করুন।
  • সাইন আপ করার পরে আপনার ইমেলে তাদের পাঠানো কনফারমেশন ইমেল পাঠানো হবে সেখান থেকে কনফার্ম করে নিন। এখন আপনি তাদের রেজিস্টার্ড ইউসার হয়ে যাবেন।  
  • এখন, আপনি যে সাইটে প্রোফাইল তৈরি করেছেন সে সাইটে লগইন করুন এবং ইডিট প্রোফাইলে ক্লিক করে বিভিন্ন কাজ সম্পাদনা করুন।
  • এখন সব ডিটেইলস দিন, এবাউট মি বা ডেসক্রিপশন যা আছে এবং সোশ্যাল মিডিয়া লিঙ্ক সহ সমস্ত বিবরণ লিখুন। আর আপনার ওয়েব সাইটের লিঙ্ক অবশ্যই যোগ করতে ভুলবেন না কারণ এটিই আপনার কার্যকরী ডু-ফলো ব্যাকলিংক দিতে সাহায্য করবে। 
  • বিস্তারিত দেওয়ার পরে, "সেইভ" বাটন টিতে ক্লিক করুন এবং আপনার প্রোফাইল সফলভাবে তৈরি করা হয়েছে।

১৫০ টিরও বেশি ডু-ফলো ব্যাকলিংক ওয়েবসাইটের তালিকা




Post a Comment

Previous Post Next Post