Facebook SDK

বিদ্যুতের শক খেলে করণীয় কি?

বাসা বাড়িতে এখন ইলেকট্রিক  সংযোগ বা যন্ত্রপাতির তো শেষ নেই । বরং যতই দিন যাচ্ছে তা আরও বাড়ছে, সাথে বাড়ছে কারেন্টের তারের প্যাঁচ । হুটহাট অসাবধানতায়  ইলেকট্রিক শক খাওয়ার কাহিনীও তেমন একইভাবে বেড়ে চলছে। তাই ইলেকট্রিক দুর্ঘটনার ব্যপারে জানা থাকা খুব জরুরী। একটু সচেতনতা অনেক সময় অনেক বড় বিপদ থেকে বাঁচাতে পারে আপনাকে বা আপনার প্রিয়জনকে।


বিদ্যুতের শক খেলে করণীয় কি?

চলুন আজ দেখে নেই যদি আপনি বা আপনার প্রিয়জন যদি কারেন্টের শক খান তাহলে সাথে সাথে কিভাবে তাদের বাঁচাবেনঃ

 

  • কেউ কারেন্টে শক হলে প্রথমেই তার গায়ে হাত দিতে যাবেন না। তাকে তো বাঁচাতে পারবেনই না, বরং আপনিও একই সাথে বৈদ্যুতিকস্পৃষ্ট হবেন।

 

  • প্রথমেই কারেন্টের সুইচ বন্ধ করে দেয়ার চেষ্টা করুন। যদি এতে কাজ না হয় তাহলে শুকনো খবরের কাগজ, উলের কাপড়, শুকনো কাঠের টুকরা অথবা রাবার দিয়ে ইলেকট্রিক শক খাওয়া ব্যক্তিকে থেকে ধাক্কা দিয়ে ইলেকট্রিক শকের উৎস থেকে আলাদা করতে হবে। যদি কিছুতেই কাজ না হয়, তাহলে দ্রুত বৈদ্যুতিকঅফিসে খবর দিন।
  • শক খাওয়া ব্যক্তির শ্বাস বন্ধ হয়ে গেলে দ্রুত তাকে কৃত্রিম শ্বাস-প্রশ্বাস দেয়ার ব্যবস্থা করুন। সাধারণত বলা হয় যে ৩ মিনিট এর ভিতর কৃত্রিম শ্বাস -প্রশ্বাস এর ব্যবস্থা করা গেলে ১০ জন এর ভেতর ৭ জন কে বাঁচানো সম্ভব।দেরি করলে বাঁচানোর সম্ভাবনা কমে আসে। এমন জরুরী মুহূর্তে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার ওপর আক্রান্ত ব্যক্তির বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নির্ভর করে। একই সাথে রোগীকে দ্রুত হাসপাতালে নেয়ার ব্যবস্থাও করুন।
  • মুখ, নাকে কোন ময়লা, থু থু আছে কিনা বা জিহ্বা উলটে গিয়েছে কিনা দেখে নিন। থাকলে হাতের কাছে যাই পান (কাপড়) দিয়ে পরিস্কার করে দিন, জিহ্বা উল্টে থাকলে মুখে আঙ্গুল ঢুকিয়ে তা সোজা করে দিন।এরপর দুই চোয়ালের মাঝে দুই দিকে চাপ দিয়ে মুখ খোলা অবস্থায় মুখ দিয়ে ফু দিতে থাকুন (আর্টিফিসিয়াল ব্রিদিং=মাউথ টু মাউথ)।
  • শক খাওয়া ব্যক্তির হৃদপিণ্ড যদি বন্ধ হয়ে যায় তবে তার বুকের ওপর জোরে জোরে চাপ দিতে হবে ৷
  •   বুকের ঠিক মাঝখানে একটু বায়ে (যেখানে হার্ট থাকে) হাতের তালুর গোড়ালি দিয়ে একটু ধাক্কা (ব্লো) দিন। এরপর ডান হাতের উপর বা হাত রেখে ১-২-৩…. ১-২-৩ এভাবে চাপ দিতে থাকুন। এটা মিনিটে ৭২ বারের মত করতে হয়। অর্থাৎ ঘড়ির কাটার টিক টিক এর চেয়ে একটু বেশি। ৫/৭ মিনিটের মত করে পালস, হার্ট সাউন্ড (যদি সম্ভব হয়), শ্বাস প্রশ্বাস দেখুন। যদি ফিরে আসে তবে বন্ধ করুন। আর ফিরে না এলে আবার ৩, ৪ রিপিট করুন।হাত, পা, শরীর হালকা মেসেজ করে দিতে পারেন।

  •  সব ঠিকঠাক হয়ে গেলে “Hartsol Saline 1000 ml” ২৫/৩০ ফোটা প্রতি মিনিটে দিতে পারেন। খেতে পারলে পানি, খাবার স্যালাইন, দুধ, ডাবের পানি এসব দিন।


  • যদি শক খাবার পরও শ্বাস প্রশ্বাস স্বাভাবিক থাকে তবে খুব বেশি ভয়ের কিছু নেই। রোগীকে শুয়ে থাকতে বলুন এবং পরীক্ষা করার জন্য ডাক্তারকে খবর দিন।

নিরাপদ থাকুন, সুস্থ্ থাকুন!!!


Post a Comment

Previous Post Next Post