Facebook SDK

ফেসবুকে টেলিভিশন তারকা সাবিলা নূরের দুটি ফ্যানপেজ। একটির অনুসারী সংখ্যা ১৭ লাখের ওপরে। আরেকটিতে ১৫ লাখের বেশি। যাঁরা তাঁকে অনুসরণ করছেন, তাঁরা দ্বিধায় পড়ে যাচ্ছেন ভেবে, কোনটি আসল সাবিলা! দ্বিধাগ্রস্ত অনুসারীদের সাবিলা জানিয়েছেন, যে পেজটির অনুসারী সংখ্যা ১৭ লাখের বেশি, সেটিই তাঁর আসল ফ্যানপেজ।



সাবিলা বলেন, ‘লাখ লাখ ফলোয়ার দেখে, না বুঝে, না জেনে অনেক অনুরাগী প্রতিনিয়ত প্রতারিত হচ্ছেন।’ সাবিলা জানালেন, তাঁর নামে ফেসবুকে অনেকগুলো নকল পেজ আছে। লকডাউনে দ্রুত সেগুলোর অনুসারী বেড়েছে। এতে বিস্মিত হয়েছেন তিনি। সাবিলা বলেন, ‘ওই পেজে আমার ছবি আপ করা হচ্ছে, স্ট্যাটাস পোস্ট করা হচ্ছে। ছবিগুলো আমার হলেও স্ট্যাটাস তো আর আমার নয়। অনুসারীরা আমার স্ট্যাটাস ভেবে মত দিচ্ছেন, মন্তব্য করছেন। তাঁরা একরকম প্রতারিতই হচ্ছেন।’


নকল ফ্যানপেজ নিয়ে বিপদে পড়তে পারেন বলে মনে করছেন সাবিলা। সম্প্রতি ওই পেজের একটি স্ট্যাটাসের উল্লেখ করে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘কয়েক দিন আগে ওই পেজ থেকে একটি স্ট্যাটাস দেওয়া হয়েছে।.



সেখানে প্রায় ৮০ হাজার লাইক পড়েছে। ওই স্ট্যাটাসের পক্ষেও আমি না, বিপক্ষেও না। সেখানে যা লেখা হয়েছে, সেটি আমার মতো নয়। কিন্তু সেটা দেখে ভক্তরা আমার সম্পর্কে বিরূপ ধারণা পোষণ করতে পারেন।’ নকল ফ্যানপেজ নিয়ে আরেকটি অস্বস্তির কথা জানালেন তিনি।

সাবিলা বলেন, ‘আমি নতুন একটি ইউটিউব চ্যানেল করেছি। সেখানে কোনো ভিডিও কনটেন্ট পোস্ট করলে সঙ্গে সঙ্গে সেটি ডাউনলোড করে নকল পেজে আপলোড করা হচ্ছে। এতে ইউটিউব কনটেন্টের ভিউ কমে যাচ্ছে। একইভাবে আমার আসল পেজের রিচও কমে যাচ্ছে। আসল-নকল দুটি পেজে ভক্তদের লাইক, কমেন্ট ভাগাভাগি হয়ে যাচ্ছে।’


নকল পেজটি বন্ধ করতে কোনো আইনি পদক্ষেপ নিচ্ছেন না কেন? এ প্রশ্নে সাবিলা বলেন, ‘নিচ্ছি না, কারণ, পেজটির অ্যাডমিন বা ক্রিয়েটরের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছি। যোগাযোগ করা গেলে আলাপ-আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেব। যদি তাতে সফল না হই, তাহলে আইনগত ব্যবস্থা নেব। এত ফলোয়ার নিয়ে দুটি পেজ পাশাপাশি রাখতে চাই না।’

Post a Comment

Previous Post Next Post