Facebook SDK

 আশাকরি সবাই ভালই আছেন। আমি আজকে আপনাদের মাঝে ৫জি এর কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে যাবো। সেটি হলো ৫জি আসলে আমরা আরো নেটওয়ার্ক বা ইন্টারনেট এর কি কি সুবিধা পাবো। মানে নেটওয়ার্ক এর ৫ জেনারেশনের মধ্যে আমরা আরো আগের চাইতে কি কি ফিচার পাবো আজকের আর্টিকেল শুধু এটা নিয়ে আপনাদের মাঝে বিস্তারিত আলোচনা করব।



এর আগে সরবপ্রথম আমরা ২জি ইন্টারনেট ব্যবহার করেছি। তারপর আমরা ৩জি ইন্টারনেট ব্যবহার করলাম। এবার আওমার ৪জি ইন্টারনেট ব্যবহার করেছি। তারপর ৫জি এরই পালা। মোবাইল অপেরাটর কম্পানি বা নেটওয়ার্ক কম্পানি সাধারণত প্রতি ১০ বছর পর পর তাদের জেনারেশন চেঞ্জ করে থাকে।


আমরা যখন ২জি ইন্টারনেট ব্যবহার করেছি। তখন ইন্টারনেট ছিলো বিশেষ কিছুর মধ্যে সীমাবদ্ধ। যেমন মনে করেনঃ তখন আমরা ২জি ইন্টারনেট কানেকশন দিয়ে সাধারনত ইন্টারনেট এর বিভিন্ন ওয়েবসাইট ব্রাউজিং করা যেতো। আবার ডাউনলোড এর দিক থেকে চিন্তা করলে বড়জোর কয়েক এমবি এর গান বা অন্যান্য কিছু ডাউনলোড করা যেত। তারপর নেটওয়ার্ক কম্পানি নেটওয়ার্কের ৩জি বা তৃতীয় জেনারেশন আনলে আমরা ইউটিউব পর্যন্তও ভালভাবে দেখতে পারতেছি। এবং মুভি নাটক, গান, সিনেমা সহ সকল ভারী ভারী জিনিশ ও আমরা ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড দিতে পেরেছি। মানে ৩জি আসার পর থেকে আমরা মোটামুটি ইন্টারনেট এর অনেক সুবিধা উপভোগ করতে পেরেছি।



তারপর আমরা পেলাম ৪জি। মানে নেটওয়ার্ক এর ৪র্থ জেনারেশন। এ জেনারেশনে আমরা পাচ্ছি দুর্দান্ত গতির ইন্টারনেট স্পীড। ইউটিউবে সকল ধরনের ভিডিও দেখা থেকে শুরু করে। ইন্টারনেট এর বিভিন্ন ভারী ফাইল অ আমরা অনেক তারাতারি ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড করতে পেরেছি। এবং এর ৪জি ইন্টারনেটে সাধারনত যে যে ফিচার গুলি পাওয়া তা আমরা পেয়েছি। ৪জিতে অনেক কাজ একসাথে করা সম্ভব। যেমন বড় কণ ফিউলে ডাউনলোড করা। একসাথে অনলাইন গেমইং করা সম্ভব হবে।



এখন আমি আলোচনা করব ৫জি নিয়ে। যেটা নিয়ে আমার এই আর্টিকেল এর মুল টাইটেল। ৫জি আমাদের দেশে এখনো আসে নাই । ৫জি মানে নেটওয়ার্ক ৫ম জেনারেশন। আজকের আমাদের ব্যবহার করা ৪জি নেটওয়ার্ক ব্যবহার করেই বুজতেই পারছি যে ৫জি নেটওয়ার্ক কতোটা শক্তিশালী হতে পারে। হ্যা, আপনি যদি এটা চিন্তা করে থাকেন তাহঅলে একদম সঠিক চিন্তা করেছেন। কেননা ৫জিতে থাকবে ১মিলি সেকেন্ড লেটেন্সি। যা স্পীড অনেক পরিমানে হ। যেমন ৫জি নেটওয়ার্ক এর ডাউনলোড স্পীড হতে পারে ১-১০ জিবি প্রতি সেকেন্ডে। কথা কারো মনে অভিষাশ্য হলেও একদম সত্যি। তাছারা ৫জি নেটওয়ার্ক এ অনেক কাজ একসাথে করা যাবে । যেমন মুভি দেখা। অনেক ভারী ফাইল ডাউনলোড অনলাইনে গেমিং শ আরো অনেক কাজ একসাথে করা যাবে। তবেও কোনো ইন্টারনেট এর ড্রপ করবে না। তাছারা আরো অনেক অবিশ্বাস্য ফিচার পাবো। যা আমাদের জীবনের প্রযুক্তিকে আরো অনেক সুবিধা করে দিবে।


Post a Comment

Previous Post Next Post