Be a Blogger! Write your articles.

Search In blog

স্মার্টফোনে সেরা ১০ মেসেজিং ও কলিং অ্যাপ দেখে নিন।

 স্মার্টফোন এর সহজলভ্যতার বদৌলতে লোপ পেয়েছে এসএমএস কিংবা গতানুগতিক ফোন কলের চাহিদা। সেই জায়গা দখল করে নিয়েছে মেসেজিং ও কলিং অ্যাপসমূহ। স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা কমবেশি সবাই প্রয়োজনের খাতিরে এক বা একাধিক মেসেজিং ও কলিং অ্যাপ ব্যবহার করে থাকেন।



মেসেজিং অ্যাপ আর চিরাচরিত টেক্সট মেসেজিং এর মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। একেকজনের কাছে আদর্শ মেসেজিং অ্যাপ এর সংজ্ঞা একেকধরনের। তবে অধিকাংশ মানুষই পরিবার ও বন্ধুরা ব্যবহার করে, এমন মেসেজিং ও কলিং অ্যাপই নির্বাচন করেন। চলুন জেনে নেয়া যাক, স্মার্টফোন এর জন্য সেরা দশটি মেসেজিং কলিং ও অ্যাপ সম্পর্কে।

টেলিগ্রাম – Telegram 


স্মার্টফোন এর জন্য মেসেজিং অ্যাপ এর তালিকায় প্রথম স্থানে রয়েছে প্রাইভেসি ও স্পিড ফোকাসড মেসেজিং ও কলিং অ্যাপ, টেলিগ্রাম। মোবাইল ও ডেস্কটপ উভয় মাধ্যমেই ব্যবহার করা যায় টেলিগ্রাম।

ক্লাউডে সংরক্ষণ করা যায় টেলিগ্রাম এর চ্যাটসমূহ। এছাড়াও থাকছেনা শেয়ারকৃত ফাইলের কোনো সাইজ লিমিট। অর্থাৎ যেকোনো সাইজের ফাইলই আপনি টেলিগ্রামের মাধ্যমে শেয়ার করতে পারবেন।

টেলিগ্রাম এর চ্যাট ২৫৬-বিট সিনেট্রিক এনক্রিপশন, ২০৪৮-বিট আরএসএ এনক্রিপশন এবং ডিফি-হেলম্যান সিকিউর কি এক্সচেঞ্জ দ্বারা সুরক্ষিত। টেলিগ্রাম এ স্টিকার ও গিফ সাপোর্ট এর পাশাপাশি থাকছে ফটো ও ভিডিও এডিটিং এর সুবিধাও।

টেলিগ্রাম এর সবচেয়ে অসাধারণ ফিচার হচ্ছে এর উন্নত গ্রুপ চ্যাট সিস্টেম। একটি টেলিগ্রাম গ্রুপে সর্বোচ্চ ২০০,০০০জনকে এড করা সম্ভব৷ ডোনেশন এর মাধ্যমে পরিচালিত টেলিগ্রাম সম্পূর্ণ ফ্রি একটি মেসেজিং অ্যাপ এবং ব্যবহারকারীর তথ্য সুরক্ষায় বদ্ধ পরিকর।

টেলিগ্রাম ডাউনলোড করুন – এন্ড্রয়েড | আইফোন

হোয়াটসঅ্যাপ – WhatsApp 


খুব সহজেই সেটাপ করা যায় এবং ফ্রি বলে স্মার্টফোন এ মেসেজিং অ্যাপ হিসেবে হোয়াটসঅ্যাপ ছাড়িয়ে গেছে এই তালিকায় থাকা অন্য সব অ্যাপ এর জনপ্রিয়তার মাইলফলক। সাধারণ চ্যাটিং এর পাশাপাশি হোয়াটসঅ্যাপ এর মাধ্যমে শেয়ার করা যায় ছবি, ডকুমেন্ট, কন্টাক্ট, এমনকি লোকেশন ও। হোয়াটসঅ্যাপ এ সর্বোচ্চ ৮জন একই অডিও বা ভিডিও কলে জয়েন করতে পারেন।

হোয়াটসঅ্যাপ মূলত ফোন নাম্বারভিত্তিক হওয়ায় এটি ব্যবহারকারীর কন্টাক্ট লিস্টে থাকা ফোন নাম্বারের মধ্যকার সকল হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীকে আপনাআপনি এড করে নেয়। বিপুল জনপ্রিয়তা ও ফেসবুক এর নিয়ন্ত্রাধীন হওয়া স্বত্বেও এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন এর বদৌলতে হোয়াটসঅ্যাপ  এ টপ লেভেল প্রাইভেসি ও সিকিউরিটি পাওয়া যায়।

হোয়াটসঅ্যাপ ডাউনলোড করুন – এন্ড্রয়েড | আইফোন

ফেসবুক মেসেঞ্জার – Facebook Messenger


যারা নিয়মিত ফেসবুক ব্যবহার করেন, তারা কোনো না কোনোভাবে ফেসবুক এর মেসেজিং অ্যাপ, মেসেঞ্জার সম্পর্কে অবগত আছেন। ফেসবুক একাউন্ট থাকলে এক ক্লিকেই স্মার্টফোনে ব্যবহার করা যায় মেসেঞ্জার। এছাড়াও ডেস্কটপেও ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে ব্যবহার করা যায় মেসেঞ্জার। চ্যাট হেড এর মত অ্যাপ এর বাইরেও চ্যাট করার সুবিধা মেসেঞ্জারের জনপ্রিয়তাকে নিয়ে গিয়েছে অন্য মাত্রায়।

মেসেঞ্জার এর ফিচার সম্পর্কে বলে শেষ করা যাবেনা। ২৪ঘন্টা মেয়াদি পোস্ট, স্টোরি এর পাশাপাশি লোকেশন, ফটো, ভিডিও শেয়ারিং এর সুবিধা তো থাকছেই।

সম্প্রতি মেসেঞ্জার এ যুক্ত হতেছে রুমস সুবিধা, যেখানে লিংক এর মাধ্যমে ফেসবুক একাউন্ট না থাকলেও সর্বোচ্চ ৫০জন একই গ্রুপ কলে যুক্ত হতে পারবে। আরো যুক্ত হয়েছে ভ্যানিশিং মেসেজ সুবিধা। মেসেঞ্জারে সর্বোচ্চ ২৫০জনকে নিয়ে গ্রুপ চ্যাট খোলা যায়। এছাড়াও ফ্রি অডিও ও ভিডিও চ্যাটে সর্বোচ্চ ৫০জন পর্যন্ত যুক্ত হতে পারেন। 

মেসেঞ্জার ডাউনলোড করুন – এন্ড্রয়েড | আইফোন

স্ন্যাপচ্যাট – SnapChat




সেলিব্রেটিদের দ্বারা জনপ্রিয়তা অর্জন করা অ্যাপ, স্ন্যাপচ্যাট, বর্তমান তরুণ সমাজের মধ্যে ব্যাপকভাবে জনপ্রিয়। তবে স্ন্যাপচ্যাট অন্যান্য গতানুগতিক মেসেজিং অ্যাপ থেকে অনেকটাই আলাদা। ফিচার এর দিক দিয়ে স্ন্যাপচ্যাট এর লিস্ট অন্যান্য অ্যাপগুলো থেকে ছোট হলেও, এর মধ্যকার সকল ফিচারই ব্যবহারকারীদের হাতের মুঠোয়। যার ফলে এতোসব অ্যাপ এর ভিড়ে জনপ্রিয়তায় তেমন একটা ধ্বস আসেনি স্ন্যাপচ্যাটের। স্ন্যাপচ্যাটে ব্যবহারকারীরা নিজেদের ছবির বদলে এভেটার ব্যবহার করতে পারেন তাদের প্রোফাইল পিকচার হিসেবে।

স্ন্যাপচ্যাট এর রয়েছে ভয়েস কলিং, ভিডিও মেসেজে, ফটো মেসেজ ও সাধারণ টেক্সট মেসেজিং এর সুবিধা। স্ন্যাপচ্যাট এর প্রেরণকৃত মেসেজ একবার দেখার পরেও ভ্যানিশ হয়ে যায়, যার ফলে দুইজন ব্যাক্তির মধ্যকার কথোপকথন তৃতীয় ব্যাক্তির দ্বারা দেখা সম্ভব হয়না। এছাড়াও কেউ যদি চ্যাট এর স্ক্রিনশট ও নেয়, সেটিও অন্যপ্রান্তের বার্তা প্রেরণকারীকে জানিয়ে দেয় স্ন্যাপচ্যাট। রয়েছে ছবি তোলা বা ভিডিও রেকর্ডের বিভিন্ন লাইভ ফিল্টার, যা ব্যবহারকারীদের মধ্যে বিপুল জনপ্রিয়।

স্ন্যাপচ্যাট এর সবচেয়ে জনপ্রিয় ফিচার হল স্টোরিস। স্টোরিস হল ২৪ঘন্টা মেয়াদি পোস্ট, যা পোস্টকারীর ফলোয়ার দেখতে পারে। এই ফিচারটি এতোটাই জনপ্রিয় হয় যে, ফেসবুক অনেকটা বাধ্য হয়ে তাদের অ্যাপ, মেসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপ ও ইন্সটাগ্রামে ফিচারটি যুক্ত করে। এছাড়াও স্ন্যাপচ্যাট এর এই যুগান্তকারী ফিচার টুইটার, এমনকি লিংকডইন কতৃপক্ষকেও নাড়া দেয়। যা ফলে প্ল্যাটফর্মগুলোতেও যুক্ত হয়েছে স্টোরিস।

স্ন্যাপচ্যাট ডাউনলোড করুন – এন্ড্রয়েড | আইফোন

ডিসকর্ড – Discord




মূলত ভিডিও গেমারদের জন্য এর জন্য নির্মিত ২০১৫ সালে মুক্তি পাওয়া ডিসকর্ড অ্যাপ। বর্তমানে মাসিক ৫৬মিলিয়নের অধিক নিয়মিত ব্যবহারকারীর পাশাপাশি মোট ২৫০মিলিয়ন ব্যবহারকারী রয়েছে ডিসকর্ড অ্যাপ এ। প্রাইভেট গ্রুপ চ্যাটে একই সাথে ১০জন ভয়েস কলে যুক্ত হতে পারে ডিসকর্ড এ, যা গেমারদের জন্য গেমিং এর সময় টিম ম্যানেজমেন্ট এ সুবিধা প্রদান করে।

ডিসকর্ড রয়েছে চ্যানেল নামক গ্রপ চ্যাট এর সুবিধা, যার মধ্যে আবার আলাদা আলাদা ধরনের আড্ডার জন্য আলাদা আলাদা সাব-গ্রুপ তৈরী করা যায়। গ্রুপ এর পাশাপাশি, সাবগ্রুপগুলোর ও আলাদা সেটিংস রয়েছে, যা গ্রুপ চ্যাটিংকে আরো ফ্লেক্সিবল করেছে। তবে ডিসকর্ড এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন ব্যবহার করেনা। তাই যারা সিকিউর ও প্রাইভেসি ফোকাসড মেসেজিং ও কলিং অ্যাপ খুজছেন, ডিসকর্ড তাদের জন্য আদর্শ পছন্ধ না হতেও পারে।

ডিসকর্ড ডাউনলোড করুন – এন্ড্রয়েড | আইফোন

সিগনাল – Signal




চ্যাট এনক্রিপশন ও সিকিউরিটির দিক বিবেচনা করলে ওপেন হুইসপার সিস্টেমস এর অ্যাপ, সিগনাল অ্যাপটি একটি অসাধারণ চয়েস হতে পারে। সকল মেসেজিং ও ভয়েস কল এর মিলিটারি-গ্রেড এনক্রিপশন প্রদান করে অ্যাপটি। অ্যাপটিতে রয়েছে টেক্সট, ভয়েস কল, গ্রুপ মেসেজ ও এটাচমেন্ট সেন্ডিং এর সুবিধা। এডওয়ার্ড স্নোডেন এর মত এক্সপার্ট সিগনাল অ্যাপটিকে সবচেয়ে সিকিউরড মেসেজিং অ্যাপ এর আখ্যা দিয়েছেন। সিগনাল অ্যাপে রয়েছে ইমেজ এডিটর, স্টিকার, এমনকি মেসেজে ইমোজি দ্বারা রিয়েক্ট দেওয়ার সুবিধা।

সিগনাল ডাউনলোড করুন – আইফোন | এন্ড্রয়েড

ভাইবার – Viber




অসংখ্য মেসেজিং অ্যাপ এর ভিড়ে মেসেজিং অ্যপ হিসেবে ভাইবার এর জনপ্রিয়তা কমে গেলেও, ফিচার বিবেচনায় কোনোদিক দিয়েই পিছিয়ে নেই অ্যাপটি। বিশ্বব্যাপী ১বিলিয়নেরও অধিক ব্যবহারকারী নিয়ে ভাইবার জনপ্রিয় মেসেজিং ও কলিং অ্যাপ এর তালিকায় খুব সহজেই স্থান করে নিয়েছে। ভাইবার এ রয়েছে সাধারণ মেসেজিং, সেল্ফ-ডিস্ট্রাকটিং মেসেজ, গ্রুপ চ্যাটিং সুবিধা, ভিডিও মেসেজিং ও চ্যাটিং এর মক্ত অসংখ্য ফিচার। থাকছে স্টিকার, বিশ্বের খবরাখবর এর মত বাড়তি কিছু ফিচার ও। তবে যারা মেসেজিং বা চ্যাটিং এর জন্য সিম্পল ও ক্লিন ইন্টারফেস পছন্ধ করেন, ভাইবার তাদের জন্য নয়।

ভাইবার ডাউনলোড করুন – এন্ড্রয়েড | আইফোন

লাইন – Line




৬০০মিলিয়ন ব্যবহারকারী নিয়ে এশিয়ার মহাদেশে ব্যাপক জনপ্রিয়, মেসেজিং ও কলিং অ্যাপ, লাইন। সাধারণ মেসেজিং ফিচারসমুহ এর পাশাপাশি এই অ্যাপটিকে ফেসবুক এর সাথে তুলনা করা চলে। লাইন অ্যাপ এ পোস্ট করা যায় এবং বন্ধুরা পোস্টে কমেন্ট ও করতে পারে। 

লাইন অ্যাপ ব্যবহার করে বিনামূল্যে ল্যান্ডলাইনেও কল সম্ভব। এছাড়াও লাইন ব্যবহারকারীরা একেক অপরকে মেসেজ পাঠানোর পাশাপাশি অডিও ও ভিডিও কলিং এর সুবিধাও রয়েছে। লাইন ক্যারেক্টার সম্বলিত স্টিকার রয়েছে লাইন অ্যাপটিএ, যা ব্যবহারকারীদের মধ্যে বিপুল জনপ্রিয়। একই চ্যাট গ্রুপে সর্বোচ্চ ৫০০জন পর্যন্ত হতে যুক্ত হতে পারেন।

এছাড়াও লাইন অ্যাপে আর্টিস্ট ও ব্যান্ডকে ফলো করার ফিচার ও রয়েছে৷ লাইন অ্যাপে এলবাম সেটাপ এর পাশাপাশি বন্ধুদের সাথে শেয়ার ও করা যায়। আরো রয়েছে একই সাথে বন্ধুদের সাথে কলে থাকা অবস্থায় ইউটিউব ভিডিও দেখার সুবিধাও।

লাইন ডাউনলোড করুন – এন্ড্রয়েড | আইওএস

স্কাইপ – Skype




একটা সময় ছিলো, যখম মেসেজিং অ্যাপ এর মার্কেটে একাই রাজত্ব করে বেড়াতো স্কাইপ। তবে যুগের সাথে তাল মিলিয়ে নিজেদের আপডেট করতে না পারায়, বেশ খানিকটা পিছিয়ে পড়েছে এক সময়ের জনপ্রিয়, এই মেসেজিং ও কলিং অ্যাপ। টেক্সট চ্যাটিং এর পাশাপাশি ভিডিও ও অডিও কলিং এর সুবিধা রয়েছে স্কাইপে। স্কাইপে অন্যতম প্রধান ফিচার হলো ব্যবহারকারীরা স্কাইপ ব্যবহার করে একটি নির্দিষ্ট ফি এর বদলে রিয়াল ফোন নাম্বারেও কল করতে পারেন। অ্যাপটি ক্রস-প্ল্যাটফর্ম সাপোর্টেড। সাধারণ চ্যাটিং অ্যাপ ফিচারসমূহ, যেমন – স্টিকার, ফাইল সেন্ডিং ইত্যাদি তো থাকছেই।

স্কাইপ ডাউনলোড করুন – এন্ড্রয়েড | আইফোন

উইচ্যাট – WeChat




১বিলিয়নের ও অধিক ব্যবহারকারী নিয়ে চীনের সবচেয়ে জনপ্রিয় অ্যাপ, উইচ্যাট। মেসেজিং এর পাশাপাশি ফটো শেয়ারিং, অডিও ও ভিডিও কলিং এর সুবিধা রয়েছে অ্যাপটিতে। রয়েছে বন্ধুদের সাথে লোকেশন শেয়ারিং এর সুবিধা। পেমেন্ট, গেমস এর মত আরো অসংখ্য ফিচারে ভর্তি উইচ্যাট অ্যাপটি। এমনকি  Wear ওএস ও অ্যাপল ওয়াচ এও ব্যবহার করা যায় অ্যাপটি।

উইচ্যাট ডাউনলোড করুন – এন্ড্রয়েড | আইফোন

 

আপনার পছন্দের মেসেজিং ও কলিং অ্যাপ কোনটি? আমাদের জানান কমেন্ট সেকশনে।







Report Print
Share Via:

About Author


0 Response to "স্মার্টফোনে সেরা ১০ মেসেজিং ও কলিং অ্যাপ দেখে নিন। "

Post a comment

Total Pageviews